পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/১৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Σ. Σ No আৰ্য্যাবৰ্ত্ত । ७श दर्श-२श जरशीं । করিয়া সপ্তপদী গমন করিয়াছিলেন, হোমকুণ্ডে লাজাহুতি দিয়াছিলেন, এখনও দ্বিজাতিগণ সেই মন্ত্র পাঠ করিয়া সপ্তপদী গমন ও হোমকুণ্ডে লাজাহুতি প্ৰদান করিয়া থাকেন। এত যুগযুগান্তর ধরিয়া কোনও জাতি আপনাদের জাতীয় আচার অক্ষুন্ন রাখিতে সমর্থ হয়েন নাই। হিন্দুর এই বিশেষত্ব প্ৰতীচ্য জনসাধারণকে বিস্মিত করিয়া দিয়াছে। এই বিশেষত্বই হিন্দু জাতিকে প্ৰতীচ্য বুধমণ্ডলীর নিকট দুৰ্ব্বোধ্য করিয়া রাখিয়াছে। সেই জন্য তাহারা ভারতের ইতিহাস আলাচনায় অত্যন্ত ভ্ৰমে পতিত হইয়া থাকেন। ফলে অন্য দেশে যে পরিবর্তন দুই শত বর্ষে সংঘটিত হয়, ভারতে সেই পরিবর্তন দুই সহস্র বর্ষে সংঘটিত হয় কি না সন্দেহ । সুতরাং, রামায়ণের সময় হইতে মহাভারতের সময় পৰ্য্যন্ত ব্ৰাহ্মণ ও ক্ষত্ৰিয় সমাজে যদি কোনও পরিবাৰ্ত্তন না ঘটিয়া থাকে, তাহা হইলে তাহাতে বিস্মিত হুইবার কারণ নাই । কিন্তু পরিবর্তনসাধনই কালের ধৰ্ম্ম । কাল কোথাও বা দ্রুত গতিতে কোথাও বা অতি মন্থর গতিতে পরিবাৰ্ত্তন-সাধন করিয়া থাকে । প{চ চুয় হাজার বৎসরেও হিন্দুজাতির যে কোন ও পরিবর্তন হয় নাই, এ কথা নিতান্ত বাতুল ভিন্ন কেহ বলিতে পারে না। হিন্দু সমাজ ধীরে ধীরে পরিবর্তি হইতেছে। সেই পরিবর্তনের গতি কোন দিকে, প্ৰথমে তা হাই লক্ষ্য করা কৰ্ত্তব্য । আমরা দেখিতে পাই-হিন্দু সমাজে ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে স্ত্রীজাতির অধিকার ক্রমশঃ সন্ধুচিত হইয়াছে। বৃহদারণ্যক উপনিষদে দেখিতে পাই, গাৰ্গী, মৈত্ৰেয়ী প্ৰভৃতি রমণীরা বৈদিক “ব্রহ্মবিদ্যা” লইয়া” আলোচনা করিতেছেন। কিন্তু পরে স্ত্রীজাতি কর্তৃক বেদালোচনা রহিত করা হইয়াছিল। “স্ত্রীশূদ্র রিদ্র বন্ধুনাং ত্ৰয়ী ন শ্রুতিগোচর।” এই নিষেধাত্মক বাক্য কোন সময়ে প্রচারিত হয়, তাহার নির্ণয় করা সহজ নহে। যাহা হউক অতি প্ৰাচীন কালে স্ত্রীজাতি ধৰ্ম্মবিষয়ে যে অধিকার লাভ করিয়াছিলেন,--উত্তরকালে সে অধিকার তত্ত্বদেশী ঋষিগণ কর্তৃক সঙ্কুচিত করা হইয়াছিল। এখন দেখা যাউক, রামায়ণের রচনাকাল হইতে মহাভারতের রচনাকাল পৰ্য্যন্ত যে সময় অতিবাহিত হইয়াছিল, তন্মধ্যে স্ত্রীজাতির এই অধিকারসঙ্কোচের কোনও অ্যাভাস পাওয়া যায় কি না ? BBBB BBD DDBD DDB DS DBB L YDD BDD DDBD DBBDDBBBDS সেই যজ্ঞে ঋষিগণ শাস্ত্ৰে যে যে দেবতার যে যে বলি বিহিত আছে,-সেই সেই দেবতার উদ্দেশে সেই বলি প্ৰদান করিয়াছিলেন । আর দশরথের প্রধান