পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/১৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জ্যৈষ্ঠ, ১৩১৯ ৷৷ ফরাসী বিপ্লবের ইতিহাস । YS) করিয়া বলিলেন, “রাজ্ঞী অনেক চিন্তার পর আপনার সেই হীরক হারটি ক্ৰিয় করিতে সম্মত হইয়াছেন ; এ কথা। আপনি কাহারও নিকট প্ৰকাশ করিবেন না।” এই বলিয়া মথি রাজ্ঞীর নামাঙ্কিত একখানি লিপি বোহেমারের হস্তে অৰ্পণ”করিলেন। পত্ৰখানি প্ৰকৃত পক্ষে রাজ্ঞী কর্তৃক স্বাক্ষরিত কি না, তৎসম্বন্ধে সন্দিহান হইয়া বোহেমার কিংকৰ্ত্তব্যবিমূঢ় হইয়া রহিলেন। মথি বলিলেন, “আপনার সন্দেহভঞ্জনাৰ্থ আমি রাজভবনস্থ জনৈক উচ্চপদস্থ কৰ্ম্মচারীকে সন্ত্ররই আপনার নিকট প্রেরণ করিব । তিনিই ক্রয়কাৰ্য্য সম্পন্ন করিবেন।” কিয়াৎকাল পরেই কাডিনাল রোহান নামক রাজ্ঞীর দাতব্য বিভাগের সর্বপ্রধান কৰ্ম্মচারী মথিসমন্তিব্যাহারে বোহেমারসমীপে আগমন করিয়া ৫৬০০০ পাউণ্ড মূল্য অবধারণে রাজ্ঞীর নামে সেই হার ক্রয় করিলেন। কৰ্ম্মচারীর নির্দেশক্রমে বিক্রীত হারটি মথির হস্তে প্ৰদত্ত হইল। মথি বোহেমারের হস্তে রাজ্ঞীর নামাঙ্কিত লিপি প্ৰদান পূর্বক হার লইয়া প্ৰস্থান করিলেন। মূল্য সম্বন্ধে এইরূপ কথা স্থির হইল যে, বোহেমার সমগ্র মূল্য এককালে প্রাপ্ত হইবে না ; আংশিক রূপে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে রাজ্ঞী ঋণ পরিাশোধ করিবেন। মূল্যের প্রথমাংশ প্রদানের নির্দিষ্টকাল উপস্থিত হইলে বোহেমার রাজ্ঞীর কোশাধ্যক্ষসমীপে গমন করিলেন ; কিন্তু কোশাধ্যক্ষ মূলা প্রদানে অস্বীকৃত হইলেন। বোহেমার রাজভবনস্থ জনৈক মহিলার নিকট অতিযোগ করিলেন। রাজা তত্ত্বস্তান্ত অবগত হইয়া রোহনকে ভৎসনা করায়, রোহান উত্তর করিলেন, “মথি আমাকে যে পত্র দেখাইয়াছিলেন তাহা আমি রাজ্ঞী কর্তৃক স্বাক্ষরিত বলিয়া বিশ্বাস করিয়াছিলাম, সেই জন্য হার ক্রয়কালে উপস্থিত ছিলাম।” রাজা বিরক্তিসহকারে বলিলেন, “আপনি রাজত বনের জনৈক প্ৰধান কৰ্ম্মচারী, ফরাসী রাজ্ঞী h প্রকারে নাম স্বাক্ষর করেন তাহা অল্প আয়াসেই অবগত হইতে ? |” ইহার অল্পকাল পরেই রোহান এবং মথি ধূত হইয়া বিচারার্থ প্যারিস পালিয়ামেণ্ট সমীপে প্রেরিত হইলেন। হীরক হারপ্রসঙ্গীয় অদ্ভুত ব্যাপারে সমগ্র ফরাসীভূমি আলোড়িত হইল। কৌতুহলাক্রান্ত হইয়া আবালবৃদ্ধবনিতা বিচার ফলের প্রতীক্ষা করিতে লাগিল। বিচারকালে এক অদ্ভুত রহস্য উদঘাটিত হইল। হীরকহার ক্রয়ের অব্যবহিত পরে মথি রোহনকে বলেন, “হীরক হার প্রসঙ্গে আপনি যে কাৰ্য্য করিয়াছেন তজন্য রাস্তী আপনাকে ধন্যবাদ প্রদানের নিমিত্ত ছদ্মবেশে রজনীযোগে আপনার সহিত ত্ৰিয়ানন উষ্মানে সাক্ষাৎ করিবেন।” রজনীযোগে নিভৃতে