পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আৰ্য্যাবৰ্ত্ত । ७ क्षै-->श १९ ।। سg তার বৰ্ম্মে পীড়িত হইয়া হন্তীও অসুস্থতার চিহ্ন প্রকাশ করিতে লাগিল। ক্রমে আলোকের অভাব অনুভূত হইলে বৃদ্ধের চিন্তার অবসান হইল। বেতসকুঞ্জ হইতে অশ্বখবৃক্ষতলে প্ৰত্যাবৰ্ত্তন করিয়া বৃদ্ধ হস্তিপককে হস্তীর, বৰ্ম্ম মোচন করিতে আদেশ করিলেন ও তাহার পৃষ্ঠের আস্তরণ সূক্ষতলে বিস্তৃত করিতে কহিলন। আদেশ শ্রবণে হস্তিপক বিস্মিত হইল,কিন্তু নিঃশব্দে আজ্ঞা পালন করিল। বৃক্ষতলে কঠিন আস্তরণে পিতা ও পুত্র উপবেশন করিলেন। হস্তিপক হস্তী লইয়া জালান্বেষণে গেল। হস্তিপক প্ৰত্যাবৰ্ত্তন করিলে لم تهیه কালে সকলে বনমধ্য হইতে শুষ্ক কাষ্ঠ আহরণ করিয়া অশ্বখবৃক্ষের চতুঃপার্শ্বে চারিটি স্তুপ নিৰ্ম্মাণ করিলেন ও কাষ্ঠভূপে অগ্নি সংযোগ করিয়া বৃক্ষতলে বিশ্রামের আয়োজন করিতে লাগিলেন। সম্মুখে হস্তী ও চতুঃপাশ্বে অগ্নিকর্তৃক রক্ষিত হইয়া মনুষ্যত্রয় রজনী অতিবাহিত করিলেন। নিশাচর মৃগা- ? সমূহ রজনীতে জলান্বেষণে আসিয়া অগ্নির ভয়ে বৃক্ষতলে আশ্রয় গ্রহণ করিতে পারিল না। প্ৰভাতে হস্তী সজ্জিত করিয়া পিতাপুত্ৰ পৃক্ষতল পরিত্যাগ করিলেন। তৎপূর্বে দিবালোকে হস্তী কর্তৃক সংগৃহীত ইন্ধন অগ্নিকুণ্ডসমূহের চতুঃপার্থে স্তুপীকৃত হইয়াছিল, কুণ্ডচতুষ্টয় সমভাবে প্রজ্জ্বলিত ছিল ও তাহার ধূম বহুদূর পর্য্যন্ত দৃষ্ট হইতেছিল। অশ্বখবৃক্ষের সান্নিধ্য পরিত্যাগকালে পিতাপুত্রে কথোপকথন হইতেছিল যে, অগ্নি সন্ধ্যাকাল অবধি প্ৰজ্বলিত থাকিবে, অশুষ্ক কাঠ প্রজ্জ্বলনহেতু ধূমের স্তস্ত বহুদূর হইতে দৃষ্ট হইবে, দুরে নগরে ও শিবিরে বনমধ্যস্থ ধূম দৃষ্ট হইলে লোক আসিবে।

  • অগ্নিকুণ্ডসমূহ দ্বিপ্রহর রাত্ৰি পৰ্য্যন্ত প্রজ্জ্বলিত ছিল, প্ৰভাতেও আঙ্গাররাশি হইতে প্ৰভুত ধূম নির্গত হইয়া আকাশে পূঞ্জীকৃত হইতেছিল। প্রথম প্রহর অতীত হইলে ধূম লক্ষ্য করিয়া হস্তীর পর হস্তী বহুসংখ্যক মনুষ্য বহন করিয়া অশ্বখবৃক্ষতলে আসিতে আরম্ভ করিল। কয়েকজন মনুষ্য ব্যান্ত্রের ত্বকচ্ছেদন করিয়া তৎক্ষণাৎ হস্তিপৃষ্ঠে প্ৰস্থান করিল ; কিন্তু অপর সকলে বৃক্ষশাখা ও পত্রের সাহায্যে অশ্বখবৃক্ষতলে অগ্নিকর্তৃক পরিষ্কৃত ভূখণ্ডে পর্ণকুটীর নিৰ্ম্মাণে প্রবৃত্ত হইল। কেহ কেহ চতুঃপার্শ্বস্থ বেতসকুঞ্জসমূহ ছেদনে সচেষ্ট হইল। সুবর্ণবৰ্ণ উষ্ণৗষ পরিহিত জনৈক যুবক, সম্ভবতঃ কোন উচ্চপদস্থ কৰ্ম্মচারী, অন্যান্য সকলের কাৰ্য্য নির্দেশ করিতেছিলেন। ক্রমে অশ্বখ বৃক্ষতলে শত হস্ত পরিমিত ভূমি সন্ধ্যার পূর্বে পরিষ্কৃত হইল। প্রতিদিন দিবসের আরম্ভ হইতে শেষ পৰ্যন্ত শ্রমজীবিগণ পরিশ্রম করিয়া ধীরে ধীরে স্তু পবেষ্টনীর চতুঃ