পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৩০৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


भभव-8छलिक । N'try ! אל סל 8ףit& মানব-প্ৰহেলিকা । —arabimur छg ७ कीव । Nature We are surrounded and embraced by her : power less to seperate ourselves from her and powerless to penetrate beyond her.- Goethe. ধরাতালে মানব সৰ্বশ্ৰেষ্ঠ জীব । মানবের কথা চিন্তা করিলে বিস্ময়সাগরে নিমগ্ন ইহঁতে হয় । একদিকে মানুষ পশুমাত্ৰ,--আর এক দিকে মানুষ দেবতা । এক দিকে মানুষ জড়পিণ্ড মাত্ৰ-আর এক দিকে মানুষ আধ্যাত্মিকতার অবতার। তিৰ্য্যক প্ৰাণীতে যে মানসিক শক্তির ক্ষীণ উন্মেষমাত্র দৃষ্ট হয়—মানবে তাহার পূর্ণ পরিণতি পরিলক্ষিত হইতেছে। মানুষেধু দেহ ধূলিকণায় গঠিত, কিন্তু সেই মানুষই ক্রমশঃ সমস্ত জড় জগতের উপর আধিপত্য বিস্তৃত করিতেছে । এই মানুষই দেবভাবপ্রণোদিত হইয়া পরের জন্য অকাতরে জীবন পৰ্য্যন্ত বিসৰ্জন করিতেছে-আবার পশুভাবের তাড়নায় ক্রোড়স্থ শিশুকে দানবের ন্যায় নৃশংসভাবে হত্যা করিতেছে। এই সকল দেখিয়া শুনিয়া মনে হয়, মানবের মত বিস্ময়কর ব্যাপার বুঝি বিধাতার সৃষ্টিতে আর নাই। মানবই বিধাতার পার্থিব সৃষ্টির চরম প্ৰহেলিকা ৷ অতি প্ৰাচীনকাল হইতেই মনীষা সম্পন্ন মহাত্মগণ এই মানব-সমস্যার KLBBD DDDS BDLLLBDB DBDBB DBuBBDS DBD DBDSDLLLLLLD এই বিষয়ে নানাবিধ সিদ্ধান্ত উপদিষ্ট হইয়াছে ও হইতেছে। খৃষ্টীয় ধৰ্ম্মশাস্ত্ৰ বলিতেছেন,-“বিধাতা স্বৰ্গীয় দূতের আদর্শে নূতন ছাচে মানুষ গড়িয়াছেন।” মুসলমানদিগের ধৰ্ম্মশাস্ত্রের মতও অনেকটা ঐ রূপ। হিন্দুর মত এই যে, জীব একেবারেই মানব-দেহ প্ৰাপ্ত হয় নাই। অশীতিলক্ষ যোনি পরিভ্রমণ করিয়া, অশীতিলক্ষ দেহ ধারণ করিয়া, পরে জীবাত্মা কৰ্ম্মানুসারে মানব-দেহ ধারণ করিবার সামৰ্থ্যলাভ করে। জীবের দেহ-ধারণ সাধনা-সাপেক্ষ । ইহা DD DDD ELLB KBD DBBDB DDD BDiLiD BB SS DBDDDBL BBBBBLD SSiEDBB S TBBDDBB DDBDDB BBDBS DD DBDBBDSSYDD iiS শায়ের উক্তি। বৰ্ত্তমান সন্দর্ভে আমি ধৰ্ম্মশায়ের এই কথার আলোচনা