পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৩৬৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জীবন-সংগ্রামে সহায় । \8S | פלסל RWס জীবন যদি জীবের আকাজ্যিক্ষত বস্তু হয়, তাহা হইলে সেই ঘাতপ্ৰতিঘাতLD BDDBDDBD DBDBB D BB BBDBDDB BDD DBBBB DDD শাবকগুলিকে রাখিয়া সমস্ত দিন নানা স্থানে বিচরণ করিয়া কিঞ্চিৎ খাদ্য সংগ্ৰহ করিয়া সেই শাবকগুলিকে আহার করায়, তখন কি সে এই কাৰ্য্যে বিরক্তি বা ক্লেশ অনুভব করে ? কখনই না । একটা অজ্ঞাত শক্তি তাহাকে এই কাৰ্য্যে প্ৰাণোদিত করিতেছে । ইহাই যেন তাহার জীবনের ব্ৰত -এই উদ্দেশ্যেই যেন তাহার সৃষ্টি-ইহাতেই যেন তাহার সুখ । ইহা যদি কিঞ্চিম্মাত্র বিরক্তিকর। কাৰ্য্য হইত, তাহা হইলে কেহ বোধ হ{ স্বতঃপ্ৰবৃত্ত হইয়া ইহাতে প্ৰবৃত্ত হইত না। এই মোহিনী শক্তিটুকুই জগৎযন্ত্রের প্ৰাণ স্বরূপ । এই শক্তির বলে এবং কৌশলে এই বিশাল বিশ্বব্ৰহ্মাণ্ডটা ঘড়ির কাটার মত যথা নিয়মে সূক্ষ্ম ভাবে চলিয়া আসিতেছে। জড় জগতেও এই নিয়ম বর্তমান ! কোন একটা জড় বস্তুর অপর কোন একটা না একটা আকর্ষণ আছে—একটা সম্প্রীতি আছে । চুম্বক লৌহ দেখিলেই আকর্ষণ করিবে, চিনি জলে দিলেই মিশিয়া যাইবে । জীবন ধারণ করিতে গেলে আত্মপ্রক্ষা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় । কিন্তু তাই বলিয়া সকল জীবই আত্মরক্ষার জন্য সতত স , কঁ হইয়া আক্রমণের প্রতীক্ষায় বসিয়া নষ্ট । সকল জীবই তাহদের জীবনের কল্পিত অথকা বাস্তব সুখসম্পদ উপভোগ করিতেছে। বিপদের কথা তাহারা আদৌ ভাবে না। তবে বিপদ যখন উপস্থিত হয়, ৬খন আত্মরক্ষার জন্য তাহারা সচেষ্ট হয়। পূর্বেই বলা হইয়াছে যে, স্বভাগের লীলা কেবল ক্ষুদ্র বৃহৎ সংখ্যাতীত আহবে পরিপূর্ণ। এই সকল আহণ চালাইতে হইলে কতকগুলি অস্ত্ৰশস্ত্রের প্রয়োজন। কারণ, বিনা অস্ত্ৰে যুদ্ধ কখনও সম্ভবে না। যখন দুইজনে DBDDBDB BDS DBDB BBBDB SDDSDD DDBDBDDD BBB BD BDBSS TDDB কি যাত্রার দলের বৃথা যুদ্ধেও ধারহীন তরবারি, আবদ্ধপুচ্ছদ শরযুক্ত শরাসন এবং তুলাপূর্ণ গদার প্রয়োজন। সেই জন্য প্রকৃতি কতকগুলি অন্ত্রের স্বজন করিয়াছেন । এই সকল অস্ত্রের মধ্যে কতকগুলি যেমন আক্রমণের জন্য তেমনই কতকগুলি আত্মরক্ষার উদ্দেশ্যে সৃষ্ট হইয়াছে। প্রকৃতি এক সঙ্গে ঢাল এবং তলোয়ায় উভয়েরই সৃষ্টি করিয়াছে। প্ৰকৃত নিরপেক্ষ জননী । মাংসাশী পশুর ভয়ঙ্কর দস্তশ্রেণী, শিকারী পক্ষীর বক্ৰ চঞ্চ ও নখর, সৰ্পের বিষময় দন্ত, কীটের হুল প্রভৃতি এই সকল আক্রমণের জন্য ; পক্ষান্তরে আবার