পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্যর্থ প্ৰেম । ७१ | אנסל אורq? উত্তরাধিকী করিবার পূর্বেই মহাযাত্ৰা করিতে হইল।” আমি বিক্ষিতভাবে ऊँशबू एिक 5ोश्लिाश । তিনি বলিলেন, “তুমি বিস্মিত হইতেছে ? জগতে বিস্ময়ের বিষয় কি আছে, বৎস ? আমি মরিবার পূৰ্ব্বে তোমাকে দেখিতে পাইয়াছি-ইহা আমার পরম আনন্দের বিষয় ।” আমি বলিলাম, “উষ্ণপ্রধান স্থানের জলবায়ু বোধ হয় আপনার ভগ্নস্বাস্থ্য দেহে সহ্য হইতেছে না।” তিনি বলিলেন, “ভারতবর্ষকে আমার কল্পনা নন্দনের সৌন্দৰ্য্যসম্পদে সুন্দর করিয়াছিল। এক দিন আমি আশা করিয়াছিলাম, ভারতে আসিয়া বাস করিব। সে আশা সফল হয় নাই—কিন্তু ভারতে মৃত্যু আমার নিয়তি। আমি ভারতে মরিতে আসিয়াছি। তোমার পিতার নিকট যখন ভারতের বর্ণনা শুনিতাম-মেঘলেশহীন সুনীল গগন, সমুজ্জ্বল দিবালোক, বিচিত্ৰবৰ্ণ বিহগ, দীপ্তিময়ী তারকা, অমলব্ধবল জ্যোৎস্না, পত্ৰবাহুল পাদপ-এ সকলের কথা যখন শুনিতাম তখন আমি মুগ্ধ হইতাম। তঁহার বর্ণনায় অতি সাধারণ দ্রব্যও সুন্দর বোধ হইত। তঁহার স্বদেশের সৌন্দর্ঘ্য যে তঁহার বর্ণনায় আমাকে মুগ্ধ করিবে তাহাতে বিস্ময়ের কারণ নাই। এ দেশ কবির দেশএদেশ ভাবের দেশ-এ দেশ সৌন্দর্ঘ্যের লীলাভূমি। আমি সেই সৌন্দৰ্য্য দেখিতে দেখিতে আত্মবিশ্বত হইয়া—আপনার দুর্বলতার কথা ভুলিয়া কিছু অধিক ঘুরিয়াছিলাম। বোধ হয়, সেই জন্যই অসুস্থ হইয়াছিলাম। এ দেশ আমার হৃদয়ে শক্তিসঞ্চার করিয়াছিল-কিন্তু এ ক্ষীণবল দেহে তাহ সহ্য হয় নাই । যে নদীর স্রোত বন্ধ হইয়া গিয়াছে সে কি বন্যার বেগ সহ করিতে পারে ?” বলিতে বলিতে তিনি কেমন অন্যমনস্ক ও উত্তেজিত হইয়া পড়িলেন। সঙ্গে সঙ্গে তঁহার হৃৎপিণ্ডে गङ्गा। হইতে লাগিল। আমি ऊांत्रिशांभ, qर्थन বিশ্রাম ব্যতীত অসুখ সারিবে না ; বিদায় চাহিলাম। তিনি বলিলেন, “আমার দিন ফুরাইয়া আসিয়াছে। কখন যে সব শেষ হইবে বলিতে পারি না। কিন্তু মৃত্যুর পূর্বে তোমাকে অনেক কথা বলিবার আছে।” আমি “আবার আসিব” বলিয়া বিদায় লইয়া গৃহে আসিলাম, গৃহে গৃহিণীকে সকল কথা বলিলাম। তিনি আমার বুদ্ধিতে বহুবিধ দোষারোপ DD DDBYYSB DD BBYJSDDD DDD tDB