পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৮৭১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চৈত্র, ১৩১৯ ৷৷ 可阿丐-5面1 byw RA শিষ্য আছেন, তাহদের দেখিতেই পাৰ্ব্বতীচরণের সময় কাটিয়া যাইবে। গৃহে কে থাকিবে ? অথচ না দেখিলে গৃহ ও যে সামান্য সম্পত্তি আছে, তাহার কিছুই থাকিবে না। শুধু তাহাঁই নহে। গৃহে একজন না থাকিলে চলিবে না। গৃহে তোমার কাকিম উন্মাদিনী, এক ভগিনী বিধবা, আর একজন--” বলিতে বলিতে ভট্টাচাৰ্য্য মহাশয়ের কণ্ঠরোধ হইয়া আসিতে লাগিল। র্তাহার নয়নে অশ্রু উথলিয়া উঠিল। তাহার পর ভট্টাচাৰ্য্য মহাশয় বলিলেন, “ইহাদের জন্যই আমার ভাবনা । ভগবান আমাকে যে দুঃখ দিয়াছেন, আমি আপনি সব সহা করিয়াছি। কিন্তু আমার মৃত্যুর পর কে এই সংসারের ভার বহিবে ; কে ইহাদের ভাবনা ভাবিবে ? সেই ভাবনাতেই আমি অস্থির হইয়াছি।” দেবীচরণ বলিল, “আপনি আমাকে যে আদেশ করিবেন। আমি তাহাই করিব।” “তোমাদের অন্নকষ্ট নাই। যদি বুঝিয়া চলিতে পার, দুই পুরুষ অন্নকষ্ট ভোগ করিবে না । তোমাদের অন্ন-বস্ত্রের ব্যবস্থা আমি একরূপ করিয়া যাইব । কিন্তু সংসারের কি হইবে ? দিন কাল যেরূপ পড়িয়াছে, তাহাতে বি, এ, এম, এ, পাশ করিলেই উপার্জনের পথ মুক্ত হয় না। আমার ইচ্ছা! তুমি গৃহে আসিয়া বাস কর।” “আপনি অনুমতি করিলে আমি তাহাই করিব।” “আমার শরীর আর বহিতেছে না। এখন পাৰ্ব্বতীচরণই যজমান রাখুক। আমি তাহাকে সে কায শিখাইয়াছি। তুমি সংসারের ভার বাহিতে শিখ । যে কয়দিন বাচিয়া থাকি, তোমাকে সে কাব্য শিখাইব । সব কাব্যই শিক্ষাসাপেক্ষ। তবে যতদিন আমি আছি, ততদিন তুমি অন্য কাষও করিতে পরিবে। গ্রামের বিদ্যালয়ে ইংরাজী শিক্ষকের পদ শূন্য হইয়াছে। তুমি এখন সে কায করিতে পাের।” দেবীচরণ আর কোন কথা বলিল না । ভট্টাচাৰ্য্য মহাশয়ের চেষ্টায় দেবীচরণ গ্রামের বিদ্যালয়ে শিক্ষকের কাৰ্য্য পাইল । এ ব্যবস্থায় বামাচরণ বিশেষ বিরক্তি প্ৰকাশ করিল। সে তাহার পত্নীকে বলিল, “দেখিতেছি বুড়া হইয়া বাবার বুদ্ধিনাশ হইয়াছে। ছেলেদের S DDBD YY DBBBB DDBS BDBD DD DS BBB DDD অনায়াসে দেবীকে বাড়ীতে বসাইয়া রাখিলেন।”