পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আৰ্য্যাবৰ্ত্ত ।। ৩য় বর্ষ-১ম সংখ্যা । 7 9ܘ݂ বিজ্ঞাপনে গ্ৰন্থকার লিখিয়াছেন- “বাঙ্গালা সাহিত্যের বহু অভাবের মধ্যে স্ত্রী পাঠ্য গ্রন্থের অভাব একটা প্ৰধান। হিন্দু আদর্শ অক্ষুঃ রাখিয়া আমাদের মহিলাগণ যাহা হইতে আনন্দ ও উপদেশ লাভ করিতে পারেন, এরূপ গ্ৰন্থ বাঙ্গালা সাহিত্যে প্রকৃতই বিরল। এই অভাব, কিয়ৎপরিমাণে, 'মোচনের জন্যই আমি পতিব্ৰতা রচনায় প্রণোদিত হইয়াছি।” লেখক মহাশয় সংস্কৃত সাহিত্যের চারুচরিত্রের সঙ্গে সঙ্গে চারুচিত্রেরও পরিচয় এই পুস্তকে দিয়াছেন। বসন্তাগমে কৈলাসের শোভাবর্ণনা নিম্নে উদ্ধত হইল ;–“অবিরাম তুষারপাতে কৈলাসের তরুলতাগণ পত্রপুপহীন ও শোভা শূন্য হইয়াছিল, ঋতুরাজের ঐন্দ্ৰ জালিকীস্পর্শ তাহাদিগকে আপাদমস্তক নবকিশলয়ে সুশোভিত করিল। গিরিবর, শুভ্ৰ তুষারাবাস পরিত্যাগ করিয়া, শ্যামল শৈবাল বসন পরিধান করিলেন। শ্বেত, লোহিত, পাটল বিবিধ বর্ণের কুসুমরাজি, গুচ্ছে গুচ্ছে বিকশিত হইয়া, তাহার কণ্ঠ, বক্ষঃ এবং পাদদেশ মণ্ডিত করিল। বিগলিত তুষারুরাশি হইতে শত শত নিঝর উৎপন্ন হইয়া অবিরাম ঝর কাের নিনাদে নিম্নাভিমুখে ধাবিত হইল । 崇 谍 禅 ঋতুরাজের আগমনে কৈলাসের তরুলতা, পশুপক্ষী সকলেই আবার নূতন স্মৃৰ্ত্তি, নূতন জীবন লাভ করিল।” গ্রন্থের ভাষা সরস ; সরল । গ্রন্থের চিত্ৰসম্পদও বিশেষ উল্লেখযোগ্য। আমরা এই গ্রন্থের পূর্বভাগের সমাপ্তি ও উত্তরভাগের প্রচার প্রতীক্ষা করিয়া রহিলাম । সংগ্ৰহ। जशाओं-उद्धे । নর ও নারী । কিছু দিন পূৰ্ব্বে মিষ্টার গেট বিলাতের সোসাইট অব আর্টস্ সভায় ভারতে নর ও নারীর অনুপাত সম্বন্ধে একটি বক্ততা করিয়াছিলেন। নর ও নারীর অনুপাত শ্ৰীজাতির উপর অনেক পরিমাণে নির্ভর করে, অনেকে এইরূপই অনুমান করিয়া থাকেন। মিষ্টার গেট তঁহার বক্তৃতায় এ কথার কোনও আলোচনা করেন নাই । পুরুষের জন্ম সম্বন্ধে তিনি ভার্কিনের মত সমর্থনেরই প্ৰয়াস পাইয়াছিলেন । আমরা নিয়ে তাহার বক্ততা সম্বন্ধে २११२ 6ि कान जाणा5ना बाज़ कब्रिलाय।