পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/১৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


आंत्रैांबर्ड । སོག་-ན་ཤག་ri ། . سالاد TD BDDD gE DDD S S BDDD BBDDD BBBBB sB LEDK বাঙ্গালাকে শ্মশানে পরিণত করিয়া ফেলিতেছে, একথা বলিলে কিছুমাত্র অত্যুক্তি হয় না। অন্য কোন দেশে এরূপ শোচনীয় ঘটনা ঘটিলে ইহার নিদান ও প্ৰতিকারের উপায় জানিবার জন্য সমস্ত দেশে ঘোর আন্দোলন ও চঞ্চল্য উপস্থিত হইত। কিন্তু এই অপূর্ব অদৃষ্টবাদপ্লাবিত দেশে ইহার জন্য জনসাধারণের অন্তরে বিষম বিক্ষোভ উপস্থিত হইলেও বাহিরে সে বিক্ষোভ বিশিষ্টভাবে আত্মপ্ৰকাশ করিতেছে না । যাহা হউক, সম্প্রতি ম্যালেরিয়াসম্বন্ধে বঙ্গদেশে কিঞ্চিৎ আলোচনা হইতে আরম্ভ হইয়াছে। এই রোগসম্বন্ধে কয়েকখানি পুস্তকও বাঙ্গালায় প্ৰকাশিত হইয়াছে। আমরা ম্যালেরিয়াসম্বন্ধে এ পৰ্যন্ত যে কয়খানি পুস্তক দেখিয়াছি, তন্মধ্যে ডাক্তার শ্ৰীযুত সৌরীন্দ্রমোহন গুপ্ত মহাশয়ের প্রণীত ‘ম্যালেরিয়া’ নামক পুস্তকখানিই সর্বোৎকৃষ্ট । বৰ্ত্তমান সময়ে বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধানে ম্যালেরিয়াসম্বন্ধে যে সকল তথ্য আবিষ্কৃত হইয়াছে, চিকিৎসকসমাজে যে মত অভ্রান্ত বলিয়া স্বীকৃত হইতেছে, ডাক্তার শ্ৰীযুত সৌরীন্দ্রমোহন গুপ্ত তাহাই তাহার পুস্তকে লিপিবদ্ধ করিয়াছেন । গুপ্তমহাশয় কলিকাতা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্ৰ, বর্তমানে চিকিৎসা-কাৰ্য্যে নিযুক্ত । এই রোগসম্বন্ধেও তিনি বিশেষরূপ আলোচনা করিয়াছেন । তাহার উপর ভাষায় মনের ভাব ব্যক্ত করিবার ক্ষমতা তাহার আছে। তঁহার ভাষা সরল, মিষ্ট ও হৃদয়গ্ৰাহী। যাহার ভাষায় সামান্যমাত্র অধিকার আছে, সেও তঁহার রচনা সহজে বুঝিতে পরিবে। যাহারা চিকিৎসা-বিজ্ঞান পড়েন নাই, চিকিৎসাবিজ্ঞানের পরিভাষা বা পারিভাষিক শব্দের সহিত র্যাহাঁদের পরিচয় নাই, তাহার ও এ পুস্তক পড়িলে ম্যালেরিয়া সম্বন্ধে বিশেষরূপ জানলাভ করিতে পরিবেন । তবে এরূপ পুস্তক একেবারে পারিভাষিক শব্দ-বৰ্জিত হইতেই পারে না । সুতরাং ইহাতে পারিভাষিক শব্দ অনেক আছে । কিন্তু ডাক্তার গুপ্ত মহাশয় সে সকলের অর্থ বেশ সরল ভাবে সাধারণের বোধগম্য করিয়া বুঝাইয়া দিয়াছেন। আমরা তঁহার পুস্তক পড়িয়া প্রীত হইয়াছি। প্ৰায় দুই বৎসর পূর্বে শ্ৰীযুত রাজকৃষ্ণ মণ্ডল নামক জনৈক সন্ত্রান্ত ব্যক্তি ‘বঙ্গে ম্যালেরিয়া’ নামে একখানি পুস্তক প্ৰকাশিত করিয়াছিলেন। মণ্ডল মহাশয় ডাক্তার বা চিকিৎসা-ব্যবসায়ী নহেন ; কিন্তু তিনি ম্যালেরিয়া সম্বন্ধে অনেক অনুসন্ধান করিয়াছেন। তঁহার অনুসন্ধানে সংগৃহীত তথ্য তিনি পুস্তককারে প্রকাশিত করিয়াছেন । ইহা ভিন্ন কয়েক জন হোমিওপ্যার্থী ও এলোপ্যার্থী