পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/১৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


चांवां, २००१ । ' की भू उद्ध। 3ዓ@ বেগমের উত্তরাধিকারী-তদীয় সপত্নীপুত্রদৌহিত্র ডাইস সম্বার-লর্ড সেন্ট ভিনসেন্টের কন্যাকে বিবাহ করেন। তিনি প্যারিসে প্রাণত্যাগ করিলে তাহার বিধবা লর্ড ফরেষ্টারকে বিবাহ করেন। তঁহার কোন সন্তান ছিল না। কীন সত্যই বলিয়াছেন, ক্রীতদাসীর এই বিচিত্র জীবনকথা কল্পনাপ্রসূত কাহিনীকেও পরাজিত করে । শ্ৰীদেবেন্দ্ৰপ্ৰসাদ ঘোষ। কীটাপুতত্ত্ব। (ইতিহাস । ) প্ৰায় অৰ্দ্ধশতাব্দী হইল ব্যাধির সহিত কীটাণুর ঘনিষ্ঠ সম্বন্ধ নির্ণীত হইয়াছে। সেই সময় হইতে কীটাণু তত্ত্ব চিকিৎসা-বিজ্ঞানে প্ৰধান স্থান অধিকার করিয়াছে ও নানাস্থানে কীটাণুতত্ত্বের আলোচনাকল্পে গবেষণাগৃহ প্রতিষ্ঠিত হইয়াছে। জাৰ্ম্মানী, ফ্রান্স, আমেরিকা প্ৰভৃতি দেশে এই আলোচনায় অজস্র অর্থব্যয় হইতেছে, এই কাৰ্য্যে সুধীরা জীবন উৎসর্গ করিয়াছেন। ভারতবর্ষে কলিকাতা মেডিক্যাল কলেজে একটি গবেষণাগৃহ প্ৰতিষ্ঠিত হইয়াছে। ডাক্তার রজার্স ইহার অধ্যক্ষ । কলিকাতা মিউনিসিপালিটীর গবেষণাগৃহে ডাক্তার হাফকিন । বিসূচিকার টীকার রোগরস আবিষ্কার করেন। বোম্বাই অঞ্চলে প্ৰতিষ্ঠিত গবেষণাগৃহে প্লেগের তত্ত্বানুসন্ধান হইত ; এক্ষণে তাহা প্ৰাদেশিক গবেষণাগৃহ বলিয়া । পরিচিত। ডাক্তার হাফকিন প্যারিসে পাস্তুর গবেষণাগৃহে শিক্ষালাভ করিয়া ডাক্তার সিমসনের সহিত ভারতে আইসেন ও কলিকাতায় কাৰ্য্য করিবার পর বোম্বাইয়ে প্লেগতত্ত্বানুসন্ধান গৃহের অধ্যক্ষ নিযুক্ত হয়েনি। বৰ্ত্তমানে ইনি ভারত সরকারের জীবতত্ত্ব গবেষণাগৃহের অধ্যক্ষ । আগ্ৰায় গবেষণাগৃহ অধ্যাপক স্থানকিনের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত। মাদ্রাজে রোগপ্রতিষেধ ঔষধাগারে মানুষের সংক্ৰামক ব্যাধির প্রতিষেধক টীকার জন্য রোগারস প্রস্তুত করা হয়। শিমলার সন্নিকটে কাশৌলীতে ও মাদ্রাজে কুনুরে জলাতঙ্ক রোগের চিকিৎসার্থ পাস্তুর গবেষণাগৃহ প্ৰতিষ্ঠিত হইয়াছে। এই দুই স্থানে অনুস্থত চিকিৎসা প্ৰণালী ডাক্তার পাস্তুরের আবিষ্কত। নাইনিতাল অঞ্চলে মুক্তেশ্বর শৈলে ভারতসরকারের