পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/২২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


चांग", २००१। डांब्रडौन अब्रभानौ। As ভারতীয় অরণ্যানী। মার্কিণ প্রদেশে উপনিবেশ-প্ৰতিষ্ঠা-কামনায় ইংরাজগণ যখন তথায় উপস্থিত হুইয়া দেশ শ্বাপদ-সন্ধুল-অরণ্য-সমাকুল দেখেন, তখন তাহারা তরুমাত্রকেই শক্ৰ ভ্ৰমে বিনষ্ট করিয়াছিলেন। সভ্যতা বিস্তারের ও লোক সংখ্যাবৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে দেশ ক্ৰমশঃ অরণ্য-বিরল হইতেছে। লোকাবাস-নিৰ্ম্মাণ-কারণে অনেক নিবিড় ও হিস্রজীবজন্তু-পরিপূর্ণ অরণ্য নগরে পর্য্যবসিত হইয়াছে। অরণ্য-সংরক্ষণে মানৰ সমাজের কি পরিমাণ হিতসাধন হইয়া থাকে, লোকের কি পরিমাণ উপকার হইয়া থাকে, সে বিষয়ে জনসাধারণের চিত্ত অত্যন্ন দিন হইতে আকৃষ্ট হইয়াছে। ভারতে এখনও সাধারণ কৃষকগণ বা জনসাধারণ অরণ্য-সংরক্ষণে প্ৰকৃতির কি বিচিত্র নিয়ম অক্ষুন্ন থাকে, তাহা বুঝিতে অসমর্থ। দেশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অরণ্যের উপর নির্ভর করে। বায়ুবাহিত জলীয় বাম্পে ও পৃথিবীর মৃত্তিকাস্থিত রসে উদ্ভিদের পরিবর্ধন হয়। অরণ্যে বন্যার জলোচ্ছাসের প্রতিবন্ধকতা জন্মে এবং গিরিগাত্রে অরণ্যানী উৎপন্ন হইয়া তত্ৰত্য মৃত্তিকাকে অবিকৃত অবস্থায় ংরক্ষিত করে। প্ৰকৃতির এই প্ৰকার প্রয়োজন-সংসাধনই অরণ্যানীর কেবল মাত্র উপযোগিতা নহে। এতদ্ভিন্ন অরণ্যজাত ফল, মূল, ওষধি মানবের নানা প্ৰকাৱ প্ৰয়োজনে আসিয়া থাকে। আরণ্য দ্রব্যের ব্যবসায়ে দেশের বিলক্ষণ লাভ হয় । দুর্ভিক্ষে আরণ্য ফল, মূল ও তৃণ সহস্ৰ সহস্ৰ ব্যক্তির প্রাণ রক্ষা করে। অধুনা বৈজ্ঞানিক উপায়ে অভিনব পন্থায় আবশ্যক তত্ত্বাবধানে সকল সভ্য দেশেই অরণ্য সংরক্ষিত হইয়া থাকে, কিন্তু এই অভিনব পন্থাবলম্বনের পূর্বে, লোকে বহ্নি ও কুঠার সংযোগে অরণ্যের উচ্ছেদ সাধন করিত। সেই জন্য যে দেশে প্রাচীনকাল হইতে সভ্যসমাজের বসবাস হইয়াছে সে দেশে বন বা জঙ্গলের পরিমাণ অল্প। আর সেই জন্য সেই সকল দেশবাসিগণ আবশ্যক আরণ্য দ্রব্যের অভাবে অনেক অসুবিধা ভোগ করিয়া থাকে। অরণ্যজাত কাষ্ঠ হইতে গৃহ-- স্থালীর কত আসবাব, সাজ, সরঞ্জাম প্ৰস্তুত হইয়া থাকে তাহার ঠিক নিরূপন করা নিতান্ত সহজ নহে। কিন্তু আমাদিগের ভারতবর্ষে কেবল কাঠের জন্য অরণ্যানী সংরক্ষিত হয় না ; পরন্তু এদেশে অরণ্য সাধারণ লোকের নিত্য প্রয়োজনীয় uBDBD DBDBDD BgB DBD DDD DDB BB BD DBB DBB ভারবাহী শকট নিৰ্ম্মাণের জন্য কাষ্ঠ ও বংশ, লাঙ্গলাদি কৃষির উপকরণের কাষ্ঠাদি, yr w