পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/২৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


es | ১৮৫০ খৃষ্টাব্দে ডারউইন ও রেয়ার সংক্রামকব্যাধিগ্রন্ত মেষের রক্তে যেও একবার । । ssé Ness কীটাণু দেখিয়াছিলেন। পল্যাণ্ডার গোরক্তেও উহার অস্তিত্ব লক্ষ্য করিয়াছিলেন। কিন্তু ডারউইন তৎকালে তাহার আবিষ্কারের গুরুত্ব উপলব্ধি করিতে পারেন। নাই। ১৮৬৩ খৃষ্টাব্দে বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা দ্বারা স্থির হয়,-কীটগুই মেষের মৃত্যুর কারণ। এই সকল কীটপু জীবদেহে প্ৰবেশ করিয়া বংশবৃদ্ধি করে, ও রক্ত বিকৃত করিয়া জীবের প্রাণনাশ করে ; কিন্তু তখন অনেকে এ মত গ্ৰহণ कcद्धन नाई। যাহা হউক, এই সময় কীটপূতত্বের যথেষ্ট আলোচনা চলিতেছিল এবং এই সময় অসাধারণ-ধীশক্তিসম্পন্ন প্ৰসিদ্ধ পণ্ডিত পাস্তুরের আবির্ভাবে কাঁটাপুতুত্বের ইতিহাসে নবযুগের সুচনা হয়। শ্ৰীসত্যেন্দ্ৰনাথ মিত্ৰ । যেও একবার । আমার জীবনকুঞ্জে যেও একবার, সুমধুৱা বসন্তের সমীরের মত ; বাজিয়া উঠিবে শত বিহগ-ঝঙ্কার, পরশে উঠিবে ফুটি” ফুল শত শত। তা’র পর আসে যদি চির অন্ধকার তবু আমি স্মৃতি-সুখে রহিব বিভোর ; ঝরে পড়া-ফুলগন্ধ নীরব ঝঙ্কার, জাগা”বে তোমারি স্মৃতি বাঞ্ছিত আমার । ammimumbu ) ummaumb