পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/২৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


aire, 904 উত্তরাধিকারী। Sqዓ . তাহার পর তরুবালা জিজ্ঞাসা করিল, “তোমাদের বাড়ী কোথায়?” । অন্ধ উত্তর দিতে মুহুৰ্ত্তমাত্র ইতস্ততঃ করিল। পরিচয় দিতে তাহার লজ্জা বোধ হইল। কিন্তু তরুবালার ব্যবহারে সে সঙ্কোচ স্থায়ী হইল না ; সে বলিল, “মুর্শিদাবাদ জিলায়-তেলীরহাট গ্রামে।” মুর্শিদাবাদ জিলায়-তেলীরহাট গ্রামে ! সেই গ্রামে তরুবালার শ্বশুরালয় ছিল। তাহার কৌতুহল উদ্রিক্ত হইল। সে বলিল, তুমি কলিকাতায় আসিলে কি প্রকারে ? ততক্ষণে সহানুভূতিলাভের আশায় অন্ধ আপনার দুঃখকাহিনী বলিতে উৎসুক হইয়াছে। সে বলিল, তাহার পিতার নাম গৌরীচরণ বন্দ্যোপাধ্যায়। उिँनि চাকরী করিতেন। র্তাহার এক ভ্ৰাতা ছিলেন। পিতৃমাতৃহীন ভ্রাতাকে তিনি অত্যন্ত স্নেহ করিতেন। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হইতে না পারিয়া জ্যেষ্ঠ কর্তৃক তিরকৃত হইয়া কনিষ্ঠ নিরুদ্দেশ হয়েন । সেই দুঃখে জ্যেষ্ঠের মস্তিষ্কে ধিকার-লক্ষণ দেখা দেয় । র্তাহার দুই পুত্র-অন্ধ জ্যেষ্ঠ। এই সময় কনিষ্ঠ পুত্রের মৃত্যুতে গৌরীচরণ উন্মাদরোগগ্ৰস্ত হয়েন । চিকিৎসার উপায় নাই। শেষে অনন্যেপায় হইয়া জননী পুত্রের বিবাহ দিয়া কিছু অর্থ সংগ্ৰহ করেন ও পতিকে লইয়া চিকিৎসার্থ কলিকাতায় আইসেন। অন্ধ বিদ্যালয় ত্যাগ কৰিল । উদরান্ন-সংস্থান-চেষ্টায় চেষ্টিত হইল । শেষে বহু চেষ্টায় তাহার একটি মাসিক দশ টাকা বেতনের চাকরী জুটল। গৃহে দারূণ দারিদ্র্য। এক বৎসর পরে উন্মাদ পিতার মৃত্যু হইল। মৃত্যুর পূর্বে তিনি কেবল কনিষ্ঠ ভ্রাতা ভবতারণের নাম ধরিয়া ডাকিতেন। তাহার দুই বৎসর পরে তাহার একটি পুত্ৰ জন্মিল—এই বালকই তাহার পুত্ৰ । পুত্ৰ প্রসব করিয়া তাহার পত্নী সুতিকারোগগ্ৰস্ত হয়েন এবং বর্ষাধিক কাল রোগভোগ করিয়া মৃত্যুর ক্ৰোড়ে শান্তি লাভ করেন। সে আজ আট বৎসরের কথা । সে চাকরী করিয়া যাহা পাইত তাহাতে কোনরূপে সংসার চলিত। তাহার জননী পৌত্রকে পালন করিতেন। গত বৎসর বসন্তে জননীর সব জ্বালা জুড়াইয়াছে ; সে অন্ধ হইয়াছে। এখন ভিক্ষা ভিন্ন তাহার। আর ठaiांघ्र नाश्। বলিতে বলিতে অন্ধের দৃষ্টিহীন নয়নে অশ্রু ঝরিতে লাগিল। আর তরুবলার দুই চক্ষু হইতে দীরবিগলিত ধারায় অশ্রু পড়িতে লাগিতা। তরুবালা অন্ধের পরিচয় পাইল । তাহার হৃদয়ে তুমুল ঝটিকা বহিতে লাগিল। সে উদ্দেশে স্বামীকে জিজ্ঞাসা করিল, “তবে কি আজ সময় হইল ?” সে কোন উত্তর পাইল না ; কিছু 9ܛ