পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/২৮৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


PRK, YO) A সমালোচনা | RVŠ). প্রাকৃত-প্রভাব-প্লাবিত বাঙ্গালায় পরিশেষে সংস্কৃত-সমাদর যুগে যে সকল গ্রামের প্ৰতিষ্ঠা, সে সকলের নামেই তাহদের বয়স সপ্রকাশ । শ্ৰীপুর, লক্ষ্মীনগর, ইচ্ছাপুর, খামনগর, যশোহর, কৃষ্ণনগর-এই সকল মার্জিত্ত সংস্কৃত নামের বয়সবিচারঃ কষ্টসাধ্য নহে। পূৰ্ববৰ্ত্তা লোকালয়ের নাম এরূপ মার্জিত নহে। অবশ্য বলা বাহুল্য অন্য প্রমাণের অভাবে কেবল নামের উপর নির্ভর করিয়া গ্রামের বয়স-বিচার নিরাপদ নহে । গ্রামে সন্ধান করিলে যদি কোন অস্পশু জাতীয়ের জীর্ণ গৃহে ‘ধৰ্ম্ম ঠাকুরের’ মূৰ্ত্তি পাওয়া যায়, বা গ্রামের কোন শ্রেণীর লোকের মধ্যে ‘ধৰ্ম্ম ঠাকুরের পুজার প্রমাণ পাওয়া যায়—তবে বুঝিতে হইবে, সে গ্রাম এক কালে বৌদ্ধ-প্রভাব হইতে অব্যাহতিলাভ করে নাই। সে প্রভাব কতদিন পূৰ্ব্বে-কিরূপে-কেন আবিভূতি হইয়াছিল, তাহার অনুসন্ধান করা আবশ্যক। বাঙ্গালার সকল প্ৰাচীন পল্লীগ্রামেই দেবালয় ও জলাশয় ছিল। সেই সকলের সম্বন্ধে কিম্বদন্তীরও অভাব ছিল না। সেই সকল কিম্বদন্তীর অতিরঞ্জনের মধ্যে সত্যের অংশ উদ্ধার করিতে হইবে । হয় তা মন্দিরের সম্বন্ধে শুনা যায়, কিছুকাল পূর্বে কোন নৈসৰ্গিক কারণে পূৰ্ববৰ্ত্তী মন্দির ধ্বংসপ্রাপ্ত হইলে বর্তমান মন্দির নিৰ্ম্মিত হয়। সে কিছু কাল কত দিন পূর্ববৰ্ত্তী-বর্তমান মন্দিরের বয়স অনুমান কত দিনের-এই সকল সন্ধান করিলে ফললাভের সম্ভাবনা । এবর্তমান মন্দির যদি পূৰ্ববৰ্ত্তী মন্দিরের ভিত্তির উপর গঠিত না হইয়া অন্যত্র গঠিত হইয়া থাকে, তৰে পূৰ্ববৰ্ত্তী মন্দিরের ভগ্নাবশেষ পরীক্ষায় ঐতিহাসিক উপকরণের আবিস্কার অসম্ভব নহে। দেবমন্দির অধিকাংশ স্থলেই প্ৰতিষ্ঠাতার সাম্প্রদায়িক মতের পরিচায়ক। কিন্তু যদি নিকটবৰ্ত্তী কতকগুলি গ্রামে একই দেবতার মন্দির লক্ষিত হয়, তবে সেই সকল গ্রাম যে শৈব, শাক্ত বা বৈষ্ণব প্রভাবে প্লাবিত হইয়াছিল, এরূপ অনুমান করিতে পারা যায়। তখন সেই প্ৰভাবের পোষক প্ৰমাণের সন্ধান করিলে অনেক অনাবিষ্কৃত সত্যের আবিষ্কার হইতে পারে। জলাশয়গুলির পরীক্ষায় আরও মূল্যবান ঐতিহাসিক উপাদান প্ৰাপ্তির সম্ভাবনা। মুসলমানের ও মাৰ্হাট্টার আগমনে ও লুণ্ঠনে বাঙ্গালা বহুবার বিপন্ন হইয়াছে। গ্রনউইন্ডেল বলিয়াছেন, অন্য ধৰ্ম্মের প্রতি মুসলমানদিগের দারুণ ঘূণার ফলে ভারতের প্রাচীন স্থাপত্যাদির চিহ্নমাত্ৰ নাই।--মহারাষ্ট্রীয়দিগের বিরুদ্ধেও শিল্পকীৰ্ত্তিধ্বংসের অভিযোগ বৰ্ত্তমান। মুসলমানের ও মহারাষ্ট্ৰীয়ের আগমন-সম্ভাবনায় শঙ্কিত জনগণ কতবার বিগ্রহ বা অলঙ্কারাদি মৃত্তিকামধ্যে প্রোথিত করিয়াছিল বা জলাশয়ে নিক্ষেপ