পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৩১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাষণের কথা । . 9ܬ করিয়া থাকিত বলিয়া বোধ হয় ভাস্করগণ পাষাণময় বেষ্টনের এই অংশের “সুচি” নামকরণ করিয়াছিলেন। প্ৰত্যেক সুচির পার্শ্বে এক একটি পূর্ণবৃত্ত অঙ্কিত থাকিত ; সাধারণতঃ সুচিগাত্রে বৃত্তগুলিতে প্ৰস্ফুটিত পদ্ম ক্ষোদিত ছিল, কিন্তু অতি অল্পসংখ্যক সুচিতে নানাবিধ চিত্রও ছিল । তাহার পর আলম্বন। উত্তরভারতবাসী কোন মহাপুরুষ যে এই আলম্বনের ব্যয় দিয়াছিলেন, তাহা জানিতে পারি নাই ; কিন্তু আলম্বনটি সর্বাপেক্ষা সুন্দর হইয়াছিল। স্ত। পবেষ্টনীর সমুদায় স্তম্ভের ও তোরণের আবরণগুলির স্তম্ভসমূহের শীর্ষে আলম্বন স্থাপিত হইয়াছিল। অলিম্বনের শীর্ষদেশ ঈষৎ গোল ও মসৃণ ; প্ৰতি পার্শ্বে সমান্তরাল রেখাদ্বয়ের অভ্যন্তরে, উপরে একশ্রেণী চতুভুজ ও নিম্নে একশ্রেণী পুষ্পমাল্যে লম্বিত ঘণ্টা ; এতদ্বয়ের অভ্যন্তরে কোন স্থানে হস্তী, কোন স্থানে বা মকরমুখ হইতে নিৰ্গত মৃণাল বক্ৰগতিত চলিয়া গিয়াছে, অবশিষ্টস্থান পত্রপুষ্প-ফল-সিংহ-হস্তি-বানর প্রভৃতি জীব ও নানাবিধ চিত্রে সুশোভিত। আলম্বনের কোনস্থানে প্ৰদাতার নাম নাই বটে, কিন্তু প্ৰতি চিত্রের নিমে বা উপরে উহার নাম অঙ্কিত আছে ও অলিম্বন যে স্থানে শেষ হইয়াছে, সেই স্থানে একটি উপবিষ্ট সিংহমূর্তি অঙ্কিত আছে। স্তুপ বা স্তুপবেষ্টনীর নিৰ্মাণকাৰ্য যত দিন চলিতেছিল, ততদিন যবন ভাস্কারগণ রাজপুরুষ, শ্রমজীবী বা নিতান্ত পরিচিত ব্যক্তি ভিন্ন অপর কাহাকেও বেষ্টনীর মধ্যে প্ৰবেশের অধিকার দেন নাই। নিৰ্ম্মাণকাৰ্য্য শেষ হইলে যবনজাতীয় দেশীয় ভাস্কারগণ রাজসমীপে যাইয়া সংবাদ জ্ঞাপন করিলেন । পরদিন প্ৰাতে নগর হইতে দলে দলে নাগরিক ও নাগরিকগণ ভাসিয়া প্ৰান্তর আচ্ছন্ন করিয়া ফেলিল, কিন্তু রক্ষিগণ রাজাদেশে কাহাকেও বেষ্টনীর মধ্যে আসিতে দিল না। তখনও মঞ্চসমূহ অপসারিত হয় নাই ; গুরুভার তোরণগুলি উদ্ধে উত্তোলন করিবার জন্য যে মৃৎস্তুপগুলি নিৰ্ম্মিত হইয়াছিল, সেগুলি তখনও দূরে নিক্ষিপ্ত করা হয় নাই ; ইতস্ততঃ DBBD BBBB DBDBBBDBD DBD sODDBDLLDBS S BBBDDBD KK DDD DBD ছিল। কিন্তু প্ৰবল বাসনার বলে সমুদ্রতরঙ্গের ন্যায়। সেই বিশাল জনসঙ্ঘ বার বার আসিয়া মুষ্টিমেয় রক্ষিগণকে গ্ৰাস করিয়া ফেলিবার উপক্ৰম করিল। হস্তিপৃষ্ঠে, রন্থে, উষ্ট্রে ও অশ্বে নাগরিকগণ আসিয়া বেষ্টনীর মধ্যভাগে প্রবেশ করিবার চেষ্টা করিতে লাগিল ; জনতা বৰ্দ্ধিত হওয়ায় কোষ্ঠপালকে সংবাদ দিয়া রক্ষিসংখ্যা বৃদ্ধি করিতে হইল। তখন হতাশ । হইয়া সেই জনসঙ্ঘ বেষ্টনের বহির্ভাগে দণ্ডায়মান রহিল। উৎসাহে ও