পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৩২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Es, YeYA श्श-विलन। లిe রাজা সেই শয্যা-পাশ্বে উপবেশন করিলেন । তিনি ধীরে ধীরে বালিকাকে বুঝাইতে লাগিলেন। তাহার স্বার সহানুভূতি সিক্ত --র্তাহার সাত্মনা হৃদয়স্পর্শিনী । শোকাতুরাকে এমন করিয়া আর কেহ বুঝায় নাই,-এমন করিয়া আর কেহ সত্ত্বনা দেয় নাই,-এমন সহানুভূতি আর কেহ দেখায় নাই। সে জ্ঞানহীনা-বোধহীন নহে ; কেবল শোকের আতিশয্যে বিবাশা হইয়াছিল। সে সব বুঝিতে লাগিল ; আপনার অবস্থা উপলব্ধি করিতে লাগিল । এতক্ষণ সে কঁদিতে পারে নাই ; এখন তাহার নয়নে শান্তি-সলিল দেখা দিল । সে কঁাদিতে লাগিল । রাজা কিছুক্ষণ নীরব রহিলেন। শোকের প্রথম উচ্ছাস অপগত না হইলে শোকাৰ্ত্তের হৃদয় সাস্তুনায় শীতল হয় না । তাহার পর রাজা আবার বালিকাকে বুঝাইলেন। তাহার পর তিনি বালকের দেহ লইতে চেষ্টা করিলেন । বালিকা তখনও সে দেহ জড়াইয়া আছে । রাজা তাহাকে বলিলেন, “বালক এক তোমারই নহে। এ শোক কেবল তোমার নহে। আমি তোমার রাজা ;-আমিও আজি শোকার্তা । বালককে আমার কাছে দাও ” বালিকা আর কিছু বলিল না । রাজা সযত্নে বালকের দেহ তুলিয়া লইয়া বাহিরে আসিলেন। নবম পরিচ্ছেদ । সাস্তুনা । রাজা প্ৰত্যাবর্তনকালে পুরোহিতের আত্মীয়াদিগকে ডাকিয়া বালিকার রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা করিয়া আসিয়াছিলেন । গৃহে ফিরিয়া তিনি ভাবিলেন, এই অসহায়ার কি উপায় করা যাইতে পারে ? বৃদ্ধ পুরোহিত তীর্থদর্শনে গিয়াছিলেন ; তিনি কোথায় ছিলেন, তাহ কেহ জানিত না-বালিকাও জানিত না । কাযেই তঁহাকে সংবাদ দিবার কোনরূপ ব্যবস্থা করা অসম্ভব। আত্মীয়গণ রাজার অনুরোধে দুই চারি দিন বালিকাকে যত্ন করিতে পারেন ; কিন্তু তাহাদিগের সে যত্ন বহুদিনস্থায়ী হইবার সম্ভাবনা নাই। বিশেষ এ অবস্থায় তাহার যেরূপ সাত্মনা