পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৩৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Up . SORS উহার উল্লেখ নাই। প্ৰথমতঃ, মন্দিরের গঠনভঙ্গি দেখিয়া তাহার প্রতিষ্ঠাকালের অনুমান করা কখনই নিরাপদ হইতে পারে না, বল্লাল সেনের সময় হইতে মোগল রাজত্বের সময় পৰ্য্যন্ত ঐ অঞ্চলের স্থাপত্য কিরূপ ছিল, তাহার নির্ণয় করা একরূপ অসম্ভব। দ্বিতীয়তঃ, যে সময় ঐ বিগ্ৰহ প্ৰতিষ্ঠিত হইয়াছি, সেই সময়েই বৰ্ত্তমান মন্দির গঠিত হইয়াছিল, কি তাৎকালিক মন্দির জীর্ণ ও ভগ্ন হওয়ায় তাহার স্থানে বৰ্ত্তমান মন্দির নিৰ্ম্মিত হইয়াছিল, তাহারও নির্ণয় করা সম্ভব নহে। তৃতীয়তঃ, ঢাকা নগরীর বয়স তিন শত বর্ধমাত্র। এই তিন শত বর্ষের মধ্যে ঐ মন্দির নিৰ্ম্মিত হইলে উহার প্রতিষ্ঠাতা প্ৰভৃতির কথা একেবারেই বিশ্বতির অতলতলে ডুবিয়া যাইত না। খাঁ বাহাদুর যদি বিশ পচিশ বৎসর পূর্বে তখনকার কোন অশীতিপর বৃদ্ধকে এই বিগ্রহ ও মন্দির সম্বন্ধে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করিতেন, তাহা হইলেও তিনি “বাল্লাল সেনই উক্ত মন্দির ও বিগ্রহের প্রতিষ্ঠাতা।” ইহাই শুনিতে পাইতেন। এরূপ জনবহুল স্থানে দুই এক শত বৎসরের মধ্যে যে মন্দির ও বিগ্ৰহ স্থাপিত হইয়াছে, তাহার সম্বন্ধে এরূপ প্ৰাচীন কিম্বদন্তীর বা জনশ্রুতির প্রচলন অসম্ভব না হউক, অত্যন্ত কঠিন। খাঁ বাহাদুর স্বয়ং স্বীকার করিয়াছেন যে, কোন বৎসর বা কোন সময়ে এই নগরী নিৰ্ম্মিত হইয়াছে, তাহা জানা যায় নাই। কোন ৷ সময়ে বা কাহার রাজত্বকালে উহা নিৰ্ম্মিত হইয়াছে, খা বাহাদুর তাহা বলিতে পারেন। কি ? তাহা যদি না জানা যায়, তাহা হইলে জনশ্রুতিকে অবিশ্বাস করিবার কোনও কারণ দেখা যায় না । অন্ততঃ নবাব ইসলাম খাঁর প্রতিষ্ঠিত ঢাকা সহর অপেক্ষা ঢাকেশ্বরীর প্রাচীনত্বে বিশ্বাস করিতে যেন সহজেই প্ৰবৃত্তি জন্মে। আইন-ই-আকবরীতে বা সরকারী কোন প্ৰাচীন কাগজপত্রে ঢাকা সহরের নামোল্লেখ নাই,-ইহাতে ঐ স্থানে যে কোন ক্ষুদ্র জনপদ ছিল না, এ কথা DLBD D BDS DB BD DBDDDSBDDB BBB DDS DD DBDD LBLK মোগলদিগের অপরিজ্ঞাত ছিল। খাঁ বাহাদুর স্বয়ং বলিয়াছেন যে, নবাব ইসলাম খাঁর পূর্ববৰ্ত্তী পুর্নবাবের আমলে ঐ অঞ্চল মোগলদিগের করায়ত্ত হয়। সুতরাং তৎসময়ে মোগলদিগের দলিলপত্রে সেই ক্ষুদ্র পল্লীর নাম থাকা সম্ভবে না। পাঠানদিগের সময়ের ইতিহাস ও কাগজপত্ৰ অসম্পূর্ণ ছিল । সুতরাং সরকারী কাগজপত্রে ঢাকার নাম না থাকিলেও ঐ স্থানে ঐ নামের কোনও ক্ষুদ্র নগরী ছিল না, ইহা সপ্ৰমাণ হয় না। কেহ কেহ বলেন, ঐ স্থানে ঢাক গাছের জঙ্গল ছিল, সেই জন্য উহার নাম ঢাকা হইয়াছে। এখন কিন্তু ঐ অঞ্চলে ঐ গাছ আদৌ জন্মে না। সুতরাং ঐ অল্প V 桦”。