পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৪০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কেহ বা মহারাষ্ট্রী, শূরসেনী প্রভৃতি ভাষাকেও প্রাকৃত বলেন। রামায়ণে মিশ্রভাষার উল্লেখ আছে। রামায়ণের টীকাকার রামানুজ সংস্কৃত ও প্রাকৃত মিশ্রিত। ভাষাকেই সেই মিশ্রভাষা বলিয়া ব্যাখ্যা করিয়াছেন। জৰ্ম্মণ পণ্ডিত বেবার। প্ৰাকৃত ভাষাকে বৈদিক ভাষার সমসাময়িক বলিয়া সিদ্ধান্ত করিয়াছেন।* মহারাষ্ট্রী ও পালী প্রভৃতি ভাষা যে প্রাকৃত ভাষারই রূপান্তর তাহা বলাই ? दधवा । রামের বিদ্যাবত্তা সম্বন্ধে অযোধ্যাকাণ্ডের প্রথম সর্গে লিখিত হইয়াছে :- “শ্ৰৈষ্ঠং শাস্ত্ৰসমূহেষু প্ৰাপ্তে বামিশ্বকেষুচ।” ২৭ অর্থাৎ মিশ্রভাষায় রচিত শ্রেষ্ঠ শাস্ত্রসমূহে তিনি পারদর্শী ছিলেন। মিশ্র-ভাষায় নাটক ব্যতীত অন্য কোন শাস্ত্র রচিত হইতে পারে না । কেন না, নাটকে যে প্ৰকৃতির লোক যে ভাষায় বাক্যালাপ করিয়া থাকে তাহাকে সেই ভাষাতেই কথা বলাইতে হইবে-“রাম প্ৰাকৃতাদি ভাষা সমন্বিত নাট্ট শাস্ত্ৰাদিতে পারদর্শিতা লাভ করিয়াছিলেন । আমাদের বিশ্বাস এই মিশ্ৰ ভাষাই আৰ্য্য ভারতে সাধারণ কথিত ভাষা বলিয়া পরিচিত ছিল এবং এই কথিত ভাষাকেই হনুমান মানুষ্য বলিয়া নির্দেশ করিয়াছেন। আৰ্যভাষা সম্বন্ধে রামায়ণে অন্য কোনও উল্লেখ দেখা যায় না । বানর, নাগ, পক্ষী, রাক্ষস প্ৰভৃতি অনাৰ্য্যজাতি পৈশাচীভাষা ব্যবহার করিত। রাম এই পৈশাচীভাষাও যে শিক্ষা করিয়াছিলেন তাহাও উপযুক্ত শ্লোক হইতে অনুমান করা যাইতে পারে। নতুবা রামের পক্ষে বিরাধ ও শূৰ্পনখার সহিত কথোপকথন সম্ভবপর হইত না । রাবণ উত্তম সংস্কৃত ভাষায় বাক্যালাপ করিতেন। সীতাহরণের পূর্বভাগে তিনি বেদমন্ত্র উচ্চারণ করিয়া সীতার সহিত বাক্যালাপে প্ৰবৃত্ত হইয়াছিলেন। । , লঙ্কায় আৰ্য ভারতের মানুষী ভাষা অপ্রচলিত ছিল, তাই হনুমান সীতার সহিত মানুষী ভাষায় বাক্যালাপ করাই নিরাপদ বলিয়া মনে করিয়াছিলেন । শ্ৰীকেদারনাথ মজুমদার। prior ܚܩܝܣܢ

  • ‘উপাসক সম্প্রদায়, দ্বিতীয় ভাগ পরিশিষ্ট । ES EDBiDDiDiSigBD DD DB DBBDB JSDDDiBYS

DtuBBDBYSTSBL sLBDDTLuD BDDB BKKDBB YYB DDD DBzK DBD DB LLtSS † यां! बॉ७ ३७ गर्भ : s ¢क्षांश ।