পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৪১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাষাণের কথা । । (8) ঠু উৎসবের পূর্বদিন হইতে নবনিৰ্ম্মিত স্তুপ পত্রপুষ্পে সজ্জিত হইতে লাগিল। * তোরণ, স্তম্ভ, আলম্বন হরিদ্বর্ণপত্রে ও নানা বর্ণের পুষ্পে মণ্ডিত হইয়া গেল । তৎপূৰ্ব্বে সে ভাবে আমাদিগকে কেহ সজ্জিত করে নাই। পরে সদ্ধৰ্ম্মের প্রভাববৃদ্ধি হইয়া যখন স্তুপের যশ বিকীর্ণ হইয়া পড়িয়াছিল তখনও এবম্বিধ উৎসব আমি কখনও দেখি নাই ; সদ্ধৰ্ম্মানুরাগী শক রাজগণের আগমনে হেমৱজতখচিত আবরণে স্তপের চতুষ্পার্শ্বস্তু বিশাল প্ৰান্তর পর্যন্ত আবৃত হইতে দেখিয়াছি, কিন্তু শু্যামল পল্লব ও শ্বেতপুষ্পমণ্ডিত হইয়া স্তুপের যে শোভা হইয়াছিল। তাহা আর কখনই দেখি নাই। স্তুপের পূর্ব তােরণ নগরাভিমুখে স্থাপিত হইয়াছিল। ইহার আবরণে চারিটি স্তম্ভ ছিল, প্ৰথম স্তম্ভে তিনটি দেবমূৰ্ত্তি ক্ষোদিত হইয়াছিল। প্রথম স্তম্ভের উত্তরদিকে নাগরাজ চক্রবাকের মূৰ্ত্তি । নাগরাজ পৰ্ব্বতশিখরে দণ্ডায়মান, তাহার পদতলে কন্দরে কন্দরে সিংহ, বৃক প্রভৃতি শ্বাপদগণ লক্ষিত হইতেছে। নাগরাজের মস্তকে পঞ্চশীর্ষ সৰ্প ৰ্তাহার নাগাত্ৰ জ্ঞাপন করিতেছে। কেয়ুর, বলয়, হার প্রভৃতি রত্নালঙ্কারে শোভিত। হইয়া নাগরাজ পূৰ্ব্বদ্বার রক্ষা করিতেছেন। নাগরাজের উপরে এবং স্তম্ভের শীর্ষদেশে যে অৰ্দ্ধবৃত্তের চিহ্ন অদ্যাপি বর্তমান আছে, তাহা নানাবিধ পত্রের চিত্রে পুর্ণ ছিল। ধৰ্ম্মরক্ষিত নামক জনৈক প্রকৃত বিশ্বাসী এই স্তম্ভের ব্যয়ভার বহন করিয়াছিলেন। প্ৰথম স্তম্ভের অপর দুই পার্থে গঙ্গিত ও হয়গ্ৰীব নামক যক্ষদ্বয়ের মূৰ্ত্তি অঙ্কিত হইয়াছিল, কেবল চতুর্থ পার্শ্বে সুচীত্রয়ের ভেদের জন্য কোন চিত্র অঙ্কিত হয় নাই। গঙ্গিত করি।পৃষ্ঠে ও আজকালক শিলাসঞ্চায়ের উপরে কৃতাঞ্জলিপুটে দণ্ডায়মান। গঙ্গিতের মস্তকের উপরে অৰ্দ্ধবৃত্তে পতাকাশোভিত। একটি স্তুপ ও অজকালকের মস্তকের উপরে অৰ্দ্ধবৃত্তে পত্র অঙ্কিত হইয়াছিল। উৎসবের পূর্বে সজ্জার দিন আলম্বন হইতে যক্ষত্ৰয়ের শীর্ষদেশ পৰ্যন্ত শ্বেত পুষ্পমালায় জড়িত হইয়াছিল, কেবল অৰ্দ্ধবৃত্তগুলি দৃশ্যমান ছিল। প্ৰত্যেক যক্ষের মস্তক ও বক্ষ বিবিধবর্ণের পুষ্পমালায় সজ্জিত হইয়াছিল, নবজাত পল্লবে মূৰ্ত্তি ক্ৰয়ের বাহুমূল হইতে পাদদেশ পৰ্যন্ত আচ্ছাদিত হইয়াছিল। এইরূপে আবরণ : ও বেষ্টনের প্রত্যেক স্তম্ভ অঙ্কিত স্থান ব্যতীত পত্রপুষ্পে মণ্ডিত হইয়া গিয়াছিল,