পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৭২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


... ه. ق ... . .۰ ... ته • مہا۔ ... e. . . . ." . : . .. . . . . . . . : '• ፰ :: ” ጅኗ ̊.ኛ‛ :• . হইল বৃহদাকার শকটে স্থাপিত রক্তবর্ণ প্রস্তর স্তু পাভিমুখে আসিতেছেঃ হস্তিদ্বয়। প্রত্যেক শকট লইয়া আসিতেছে। দেখিবামাত্র চিনিতে পারিলাম, দুর, হইতে ? তাহাদিগের ভাষা বুঝিতে পারিলাম ; তাহারাও আমাদিগের ন্যায় রক্তবর্ণ পাষাণ। সমুদ্রগর্ভে একদিনে একসময়ে উৎপন্ন, বহুকাল একত্ৰ পৰ্ব্বতের সামুদেশে বাস করিয়াছি, তাহারা আমাদিগেরই, নূতন নহে। তাহারা বলিল যে, আমরা চলিয়া আসিবার পর বিদীর্ণবক্ষ অল্পসময়ের মধ্যেই বনরাজীতে আচ্ছাদিত হইয়াগিয়াছিল, বহুকাল আর কেহ তাহাদিগের অঙ্গে আঘাত করে নাই। কখনও কখনও দুই চারিজন মনুষ্য আসিয়া তাহাদিগের অঙ্গভেদ করিয়াছিল বটে, কিন্তু তাহারা অধিক আঘাত করে নাই। কেহ কেহ আঘাত করিয়া পাষাণলাভে সফলকাম হুইত, কেহ বা হতাশমনে গৃহে প্ৰত্যাগমন করিত। অল্পদিন পূর্বে মেষচৰ্ম্মাবৃত কয়েকজন মনুষ্য পর্বতশিখর হইতে অবরোহণ করিয়া পাষাণের অবস্থা নির্ণয় করিয়া গিয়াছিল, ইহার কয়েকদিবস পরে মনুষ্যগণ আসিয়া তাহাদিগকে লইয়া আসিয়াছে। মনুষ্যগণ আমাদিগকে যে ভাবে ছেদন করিয়াছিল, যে নগরে আনয়ন করিয়াছিল ও যে ভাবে রক্ষা করিয়াছিল, ইহাদিগকেও তদ্রুপ করিয়াছিল, তবে ইহারা ব্ৰাহ্মণগণ বা সদ্ধৰ্ম্মের অপর কোনও শত্রুর নিকট হইতে কোনরূপে বাধাপ্রাপ্ত বা ক্ষতিগ্ৰন্থ হয় নাই। আমরা অনুমান করিলাম, সদ্ধৰ্ম্মের চিরশত্রু ব্ৰাহ্মণগণ মহাকোশল হইতে দূরীভূত হইয়াছে। নূতন পাষণে স্তুপের ও বেষ্টনীয় সংস্কার আরব্ধ হইল, সপ্তচ্ছত্ৰ-মণ্ডিত স্তােপশীর্ষ আবার গগন স্পর্শ করিল, ভগ্ন বা বিদীর্ণ প্রস্তর খণ্ডের পরিবর্তে নূতন প্রস্তর যোজিত হইল, স্বস্থানচুত পাষাণ যথাস্থানে প্রতিস্থাপিত হইল, স্তুপের ও বেষ্টনীর শোভা আবার যেন ফিরিয়া আসিল। জীৰ্ণ সংস্কারকাৰ্য্য কত দূর অগ্রসর হইল তাহা জানিবার জন্য সুদূর মথুরা হইতে শকসম্রাট চর প্রেরণ করিতেন, উজ্জল বৰ্ম্মাবৃত সকোণ শিরস্ত্ৰাণ পরিহিত স্বল্পশ্বশ্ৰী শকজাতীয় অশ্বারোহিগণ ক্ষুদ্রকায় পাৰ্ব্বত্য অশ্বে আরোহণ করিয়া সংস্কার কাৰ্য দেখিতে আসিত। অশ্বপদশব্দ শ্রবণমাত্রই আমরা বুঝিতে পারিতাম যে, শকরাজার দূত আসিতেছে। স্তুপ, বেষ্টনী, প্ৰদক্ষিণের পথ ও সঙ্গারাম সংস্কৃত হইল। ক্ৰমে সঙ্ঘারামে ভিক্ষুসংখ্যা বৃদ্ধি পাইতে লাগিল, নানাদেশ হইতে ভিক্ষুগণ রাজানুগ্ৰহলাভেচ্ছায় বনমধ্যে সঙ্ঘারামে আসিয়া বাস করিতে লাগিলেন। বনমধ্যস্থ ক্ষুদ্র গ্রাম ক্ৰমে । ধ্ৰুংৎ গ্রামে পরিণত হইল। অপরাহ্নে ভিক্ষুগণ আসিয়া স্তুপের ছায়ায় বসিয়া । কুঁথিাপকথন করিতেন, তাহাদিগের কথাবাৰ্ত্তায় পৃথিবীর সংবাদ পাইতাম। :