পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জ্যৈষ্ঠ, ১৩১৭ণ নিরুদেশ যাত্ৰা । ` ፋꬃ হইলেন । বৃথা চেষ্টা । বিষয়কৰ্ম্ম ভাল লাগে না । কেহ তঁহার সঙ্গ চাহে না । বরং লোকে তঁাহার সকল কথা জানিয়া ভঁাহাকে ঘূণা করে । তঁহার সম্পদপ্রাচুৰ্য্যে তঁহার শত্রুর অভাব ছিল না ; শক্রদল এখন তঁহাকে উপহাস করিতে লাগিল। তাহদের উপহাস সূৰ্য্যকান্তের হৃদয়ে বিষাক্তবিশিখবৎ বিদ্ধ হইত। এখন তিনি বুঝিলেন, কন্যাদৌহিত্র তাহার কত প্রিয় ছিল। তাহাদিগকে হারাইয়া শূন্য গৃহে বাস ও লোকের ঘূণা ও উপহাস ভোগ র্তাহার পক্ষে অসহনীয় হইয়া উঠিল। তিনি গৃহত্যাগ করিলেন। V যে অপরিচিত জনতার মধ্যে আপনার অতীত জীবন ভুলিবার চেষ্টা করে তাহার পক্ষে জনাকীর্ণ নগরে বাসই সুবিধাজনক। সুৰ্য্যকান্ত কলিকাতায় আসিলেন ; নগরোপকণ্ঠে গৃহ ক্ৰয় করিলেন। তিনি নূতন স্থানে আসিলেন, কিন্তু নূতন সমাজে মিশিতে পারিলেন না-ভয়, পাছে সকলে তঁহার প্রকৃত পরিচয় পায়—তাহার জীবনকাহিনী জানিতে পারে। প্ৰতিবেশীরা তঁহার গৃহে গমন করিলে তিনি বিব্রত-চঞ্চল হইয়া উঠিতেন। তঁহার এইরূপ ভাব লক্ষ্য করিয়া তাহারা শিষ্টাচারের অনুষ্ঠানে বিরত হইলেন। র্তাহারা এই নূতন প্রতিবেশীটিকে একটি অদ্ভুত জীব মনে করিতে লাগিলেন । কিন্তু মানুষ কৰ্ম্মহীন জীবন যাপন করিতে পারে না । অবসরের প্ৰাচুৰ্য্য অধিকাংশ স্থলে কষ্টের কারণ। যাহার কোন কায নাই তাহার ‘অকায্যের’ আকর্ষণ প্ৰবল ৷ বিশেষ সুৰ্য্যকাস্তের মত যাহার কাৰ্য্যের ব্যস্ততায় হৃদয়ের যাতনা ভুলিতে চাহে-তাহদের পক্ষে কাৰ্য্যের অভাব একান্ত কষ্টকর। সুৰ্য্যকান্ত কৰ্ম্মহীন জীবন যাপন করিতে পারিলেন না । প্রতিবেশীরা সবিস্ময়ে দেখিলেন, সূৰ্য্যকান্ত অসীম উৎসাহে গৃহসংলগ্ন ভূমিতে উদ্যান রচনা করিতেছেন। প্রভাত হইতে সুৰ্য্যাস্ত পৰ্যন্ত সমস্ত । দিন শ্রমজীবিগণকে লইয়া তিনি উদ্যান-রচনায় ব্যস্ত। দেখিতে দেখিতে র্তাহার গৃহসংলগ্ন ভূমি নবীন শ্ৰী ধারণ করিল। তথায় নানা জাতীয় বৃক্ষলতা রোপিত হইল-নানাবিধ লতাকুঞ্জ-বৃক্ষাগার প্রভৃতি। রচিত হইল। নানা স্থান হইতে দুপ্ৰাপ্য বৃক্ষাদি সংগৃহীত হইল। সে উদ্যানে গোলাপের প্রাচুৰ্য্যে সকলেই বিস্মিত হইল। সুৰ্য্যকান্ত শ্বেত, রক্ত, পীত, নানাবর্ণের নানাজাতীয় গোলাপগাছে উদ্যান পূর্ণ করিলেন।