পাতা:আশুতোষ স্মৃতিকথা -দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/১২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লীলাবসান RR निनौर्भ श् न। dछे अभीश्ौ চরিত্র-দৃঢ়তাই ভঁাহাকে তরুণ যৌবনে ভাগ্যাকাশের উজ্জ্বল ধ্রুব-নক্ষত্রের দীপ্তি দিয়াছে। সেই হাওড়া ষ্টেশনের মৰ্ম্মবিদারী দৃশ্যের কথা আর কি दक्लित्र ! দেখিলাম, তাহার শবদেহের অনতিদূরে র্তাহার প্রিয় রেজিষ্ট্রার জ্ঞানচন্দ্র শোকাবেগে চীৎকার করিয়া কঁাদিতেছেন, আর অদূরে, কোথা হইতে একদল বৈষ্ণবের কীৰ্ত্তন-গানের সুর বাতাসু বহিয়া আনিতেছে। আমার যতদূর মনে পড়ে, তাহারা যে গানটি গাহিতেছিল, উহা আমার শৈশবে শ্রুত - এইরূপ এক উপলক্ষেই তাহ প্ৰথম শুনিয়াছিলাম-“গৌর চলল ব্ৰজ-নগরে। ছেড়া কঁথা, মুড়ো মাথা, করাঙ্ক লইয়া করে।” সত্যই গৌরাঙ্গ-সুন্দর, র্যাহার পাদ–পীঠে শত শত ভক্ত গড়াগড়ি দিত, যাহার কুঞ্চিত কেশদাম আমলকী দ্বারা মার্জিত হইয়া মল্লিকা-মালতীদামে সজ্জিত থাকিত, যে কেশ সুগন্ধি-তৈলবাসিত হইয়া স্কন্ধের উপর দুলিতে আশুতোষৰ থাকিত, এবং “কৃষ্ণ-কেলি'-ধূতিতে যাহার গৌর দেহ অপূৰ্বরূপে মহাপ্ৰমাণ শোভা পাইত এবং দ্রষ্টার মনোরঞ্জন করিত, সেই সোনার পুতুল গৌরাঙ্গ, সেই নবদ্বীপের চোখের মণি, শচীমাতার অঞ্চলের নিধি, বিষ্ণুপ্রিয়ার কণ্ঠহার। আজ "ছেড়া কঁথা’, ‘মুড়ো মাথা’ লইয়া সন্ন্যাসীর কমণ্ডলু হস্তে ব্ৰজপুরে যাইতেছেন,-আর নবদ্বীপে ফিরিবেন না। নবদ্বীপচন্দ্ৰ বিনা নবদ্বীপ চিরদিনের জন্য আঁধার হইয়া গেল, নবদ্বীপের ঘরের সী।াঝের দীপ নিভিয়া গেল। যাহার জন্য মূৰ্ত্তিমতী লক্ষ্মী শচীমাতা কত যত্বে নিত্য নূতন সামগ্ৰী রন্ধন করিতেন, আজ সেই বড় সাধের পুত্র করাঙ্ক হস্তে লইয়া, বনে জঙ্গলে কটু, কষায় ফল খাইয়া থাকিবেন । ঐ দেখুন। শ্ৰীবাসকে,-র্যাহার বিস্তৃত আঙ্গিনায় গৌর নূপুরশিঞ্জিত পদে নৃত্য করিয়া স্বৰ্গীয় ভাবাবেশে সারারাত্ৰি কাটাইয়া দিতেন, ভক্তগণ র্তাহার অশ্রুল্লাবিত শ্ৰীমুখের অপূর্ব মাধুৰ্য্য দেখিয়া সারারাত্রি বিনিদ্র চোখে তাহার রূপ-সুধা পান করিতেন, সেই শ্ৰীবাসের প্রাণের জুলাল গীের ধূলিকাদা মাখা গায়ে, মুণ্ডিত মস্তকে সমস্ত আত্মীয়তা ও মেহের বন্ধন ছাড়িয়া জীবন-তরণী অকুলে ভাসাইতেছেন-এ দৃশ্য কি দেখিবার ? RQ)