পাতা:আশুতোষ স্মৃতিকথা -দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/১৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R AR আশুতোষ-স্মৃতিকথা অল্পক্ষণ পরেই আবিষ্কার করিত যে, তাহার বাহ কঠোরতা নারিকেলের ছোবড়ার মতউহার ভিতরে উৎকৃষ্ট পেয়-মৃত-সঞ্জীবনী রস সঞ্চিত আছে । বঙ্গভাষার উন্নতি-কল্পে আশুতোষ সাক্ষাৎ সম্বন্ধে বিশেষ কিছু করেন নাই। র্তাহার কৰ্ম্মবহুল জীবনে তিনি সাহিত্য-ক্ষেত্রে কোন উল্লেখ-যোগ্য অবদান করিয়া যাইবার অবসর পান নাই। কিন্তু তিনি এই ক্ষেত্রে যে কল্পতরুর বীজ বপন করিয়াছেন, তাহার ফল বাঙ্গালী জাতি যুগ-যুগান্তর ধরিয়া উপভোগ করিবে। ভগীরথ গঙ্গার সৃষ্টি করেন নাই। কিন্তু তিনি খাদ কাটিয়া গঙ্গাধারা বহাইয়া দিয়াছিলেন। সেইরূপ আশুতোষ স্বয়ং সৎসাহিত্যের সৃষ্টি না করিয়াও ইহার ধারা বহাইয়া দিবার জন্য অমৃতকুণ্ডের খাদ কাটিয়া গিয়াছেন। বাঙ্গলা ভাষার ভিত্তি-ভূমি তিনি এরূপ সুদৃঢ় করিয়াছেন যে, এখন ইহার উপর যে কোন বৃহৎ ইমারতের প্রতিষ্ঠা হইতে পারে। ১৮৩৫ খৃষ্টাব্দের মেকলের আইন ১৯৩৫ খৃষ্টাব্দে, ঠিক এক শতাব্দী পরে, উল্টাইয়া দিবার বিধি প্ৰণয়ন করিবার তিনিই প্ৰধান পাণ্ডা ; রাজা রামমোহন ও মেকলের চেষ্টায় বাঙ্গলা ভাষার পাট শিক্ষামন্দির হইতে একরূপ উঠিয়া গিয়াছিল। সেই বিধি প্ৰচলিত হওয়ার সময় রামমোহন আর ইহলোকে ছিলেন না। কিন্তু মূলতঃ র্তাহারই সাগ্ৰহ চেষ্টার ফলে মেকলে বাঙ্গলা ভাষার শিকড় আমাদের স্কুল-কলেজ হইতে উচ্ছেদ করিয়াছিলেন। আজি আশুতোষ জীবিত নাই, কিন্তু তঁহারই বহু সাধনায় বাঙ্গলা ভাষা গৌরবের সহিত পুনরায় স্কুল-কলেজে প্রতিষ্ঠিত হইয়াছে। আশুতোষের সুযোগ্য পুত্র শু্যামাপ্ৰসাদ সেই ফল পরিবেশনের ভার গ্ৰহণ করিয়াছেন। আশুতোষ ১৯২০ খৃষ্টাব্দে বাঙ্গলা ভাষায় এম, এ, পরীক্ষার ব্যবস্থা করিয়া এই ভাষাকে জগতের উন্নত ভাষাগুলির সঙ্গে একপাংক্তেয় করিয়াছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক বিধানে বাঙ্গলা ভাষার সাহায্যে জ্ঞানের সর্ববিধ শাখায় প্রবেশ-পথ উন্মুক্ত হইল এবং সে চেষ্টার কর্ণধাব ছিলেন আশুবাবু; ইহাতে আমাদের মাতৃভাষার যে কল্যাণ সাধিত হইল, তাহা কালে বঙ্গভারতীর কর্ণে নিশ্চয়ই বিজয়-কুণ্ডল পরাইবে । আশুতোষ-কৃত বঙ্গভাষার এই সেবা শ্রেষ্ঠ কবি বা দার্শনিকের অবদানের মূল্য হইতে এক তিলও নৃন নহে। এই সাৰ্বজনীন শুভঙ্কর বিধানে বঙ্গভাষা অচিরে ভারতীর মন্দিরে প্রতিষ্ঠা লাভ BDBBB SS BB BDBBBSDD BDBDDS DDD DB DDDD DBDBDS D BBS DDSBDBY র্তাহার বেশী উপকার করিতে পারিবেন না । এক কথায় বলা যাইতে পারে, আশুতোষ বঙ্গভাষা ও সাহিত্যের বিশাল উদ্যানে অমৃত সিঞ্চন করিয়া ইহার উর্বরতা অশেষ গুণে বাড়াইয়া গিয়াছেন এবং ইহার গৌরব-ধ্বজ এদেশে এরূপভাবে প্রোথিত DB BBBBDDS BDBS S DBDBD DDDD DBDBD D S DDDDDBDB DBBSDuDBBB তৎকৃত এই মহোপকারের ফল এ দেশ লাভ করিবে। শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিগণ সর্বদাই যে