পাতা:আশুতোষ স্মৃতিকথা -দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


RV) আশুতোষ-স্মৃতিকথা বিস্তৃত ‘শারীর বিদ্যা’র (Anatomy) প্রথম ভাগ (মূল্য-৫২ টাকা) ১৮৭১ খৃষ্টাব্দে প্রকাশ করেন। মেডিক্যাল কলেজে যদি বাঙ্গলায় চিকিৎসা-শাস্ত্ৰ অধ্যয়নের রীতি পূর্ববৎ প্রচলিত থাকিত, তবে ডাক্তারীর জ্ঞান দেশময় সাধারণের মধ্যে প্রচারিত হইত ; সর্ববিষয়ে বঙ্গভাষাকে শিক্ষার গণ্ডী হইতে বহিষ্কৃত করিয়া দিয়া দেশের মৌলিক চিন্তা, মৌলিক গবেষণার পথ রুদ্ধ করিয়া দেওয়া হইয়াছে। সম্প্রতি আশুতোষ ও ‘র্তাহার যোগ্য পুত্র শ্যামাপ্রসাদ এই অভিযোগ হইতে শিক্ষাবিভাগকে মুক্তি দিয়া দেশের অশেষ কল্যাণ সাধন করিয়াছেন। যে সময় গঙ্গাপ্রসাদ ‘মাতৃশিক্ষা” প্রভৃতি গ্ৰন্থ বাঙ্গলাভাষায় রচনা করেন, সেই সময় ঢাকার ক্যাম্বেল চিকিৎসা-শিক্ষায়তনের অধ্যাপক খ্যাতনামা কাশীকুমার দত্ত (রায় বাহাদুর) বাঙ্গলায় কতকগুলি সুবৃহৎ চিকিৎসা-গ্ৰন্থ রচনা করিয়াছিলেন। যে সময় গঙ্গাপ্রসাদ তাহার রামায়ণের অনুবাদ রচনা করেন, সে সময়ের হিসাবে তাহার পদ্যরচনা বিশেষ আদরের সামগ্ৰী হইয়াছিল । কবি রাজকৃষ্ণের রামায়ণের অনুবাদ হইতে গঙ্গাপ্ৰসাদের অনুবাদ সুন্দর ও সুললিত হইয়াছিল। চিকিৎসা-ব্যবসায়-সম্বন্ধে গঙ্গাপ্ৰসাদের অনুকূল মত ছিল না। তিনি সর্বদা বলিতেন—“আমার বংশে কেহ যেন ডাক্তার না श्।” छिनि সুপ্ৰসিদ্ধ এবং কৃতবিদ্য চিকিৎসক ছিলেন এবং তঁাহার আয়ও প্রচুর ছিল, তথাপি ভিষক-বৃত্তির উপর তাহার বিতৃষ্ণার কারণ কি, সহজেই এই প্রশ্ন মনে হইতে পারে। তিনি তাহার কারণ এইভাবে দেখাইতেন। उं२ চিকিৎসা ব্যবসায়ী ভবানীপুর বা কলিকাতা এত বড় ধনিনিবাসে পরিণত সম্বন্ধে বিরুদ্ধ মত হয় নাই। ডাক্তারগণের মধ্যে র্যাহারা প্ৰসিদ্ধ, তাহারাও দুই টাকার বেশী “ফি' পাইতেন না। গঙ্গাপ্রসাদ যখন ভবানীপুরে চিকিৎসাব্যবসায়ে অপ্রতিদ্বন্দ্বী, তখনও তঁাহার ‘ফি’ চার টাকা মাত্র ছিল। তিনি দেখিতেন, এই দুই টাকা কিংবা চার টাকা ‘ফি' দিতেও অনেকের কষ্ট হইত। গঙ্গাপ্রসাদ রোগীর অবস্থা-বিবেচনায় কখনও কখনও ‘ফি’ লইতেন Ti, এমন কি ঔষধের দাম পৰ্য্যন্ত ছাড়িয়া দিতেন। তথাপি তিনি মাঝে মাঝে