পাতা:আশুতোষ স্মৃতিকথা -দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R • • আশুতোষ-স্মৃতিকথা সম্পর্কে যাহা জানি, তাহাই লিখিলাম। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং কৰ্ম্মচারীরা তঁহার অজস্র। দয়া এবং অনুগ্রহ পাইত। কিন্তু কেহ বাস্তবিক কিছু অন্যায় করিলে তিনি রুদ্রমূৰ্ত্তি ধারণ করিতেনಸೌರಾಷ್ಟ್ರೇ? * সেই লোকোত্তর পুরুষ কুসুমের মত কোমল হইয়াও বজের মত কঠিন হইতে পারিতেন। তঁহার মৃত্যুর অব্যবহিত পূর্বে আমার সম্বন্ধে আর একটি ঘটনা হইয়াছিল ; তাহা এখানে উল্লেখ করিব । সেবার আমি ম্যাটিকুলেশন পরীক্ষার হেড এগাজামিনার। আমার তখন তিন তলার একখানি ঘর তৈরি হইতেছে এবং সমস্ত বাড়ীটার মেরামত চলিতেছে। আমি কনট্রোলার অবিনাশবাবুকে যাইয়া বলিলাম,—“আমার বাড়ীতে জায়গা সঙ্কীর্ণ, বিশেষ রাজ-মজুরেরা যেখানে সেখানে, অবাধে যাতায়াত করিতেছে,—ম্যাটিকের এই রাশি রাশি কাগজ সেখানে রাখা অত্যন্ত অসুবিধা-জনক এবং একেবারেই নিরাপদ নহে। পরীক্ষা শেষ হইয়া গিয়াছে, আপনারা ২৩ মাস হেড এগাজামিনারের বাড়ীতে মিছামিছি খাতাগুলি ফেলিয়া রাখেন, এবার কিন্তু আমার তাহ রাখিবার একেবারেই সাধ্য নাই ।” অবিনাশ বাবু বলিলেন—“তা” ঠিকই তো, আপনি নরেনকে ( নরেন্দ্রনাথ সেন, পরবত্তী কনট্রোলার ) বলুন।” আমি নরেনবাবুকে বলিলে তিনি বলিলেন,-“সে হইতেই পারে না, আমাদের অফিসে এখন কাগজ রাখিবার জায়গা নাই। আরও ২৩ মাস কাগজ ‘न इहेष्ठ३ आप्न न **** ওখানেই থাকিবো।” আমি বলিলাম,-“যদি রাজমজুরের দ্বারা কাগজ নষ্ট হয়,-সব ঘরেই মেরামত চলিতেছে ; আমার পরিবার লইয়াই খুব কষ্টে-সৃষ্ট বাড়ীতে থাকিতে হইয়াছে, এখন কাগজ কোথায় রাখি বলুন তো ? শেষে নষ্ট হইয়া যাইতে পারে।” জুপি" স্বরে তিনি বলিলেন-“নষ্ট হয় তো সে দায়িত্ব আপনার ।” *ዂ এই বলিয়া নরেনবাবু অবিনাশবাবুর কাছে কি বলিয়া আসিলেন। তা’রপর আমি অবিনাশবাবুর কাছে পুনরায় যাইয়া বলিলাম,-“আপনার কথা তো নরেনবাবু রাখিলেন না, ঘোর আপত্তি করিতেছেন, আফিসে না-কি डाशी नाथे ।”