পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৮৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্রিস্টলে রামমোহন স্মৃতিতর্পণ S&S কোম্পানীর সনন্দ নূতন করিয়া দিবার কথা উপস্থিত হইল, এবং হিন্দুসমাজ যখন সতীদাহ সম্বন্ধীয় আইন রদ করিয়ার জন্য বিলাতে দরখাস্ত পাঠাইলেন, তখন এখানে ( বিলাতে ) এই আশাতে ছুটিয়া আসিলেন যে, যদি দেশের লোকের হইয়া দুটা কথা বলিতে পারেন, এবং যদি হতভাগিনী বিধবাদিগের হইয়া কিছু করিতে পারেন। এখানেও দুরন্ত পরিশ্রম করিলেন ; খাটিতে খাটিতে এই ব্রিস্টল নগরে ১৮৩৩ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর, শুক্রবার প্রাতে তাহার। প্ৰাণ গেল । কি মহৎ দৃষ্টান্ত ! তিনি আমাদের সম্মুখে যে-দৃষ্টান্ত রাখিয়া গিয়াছেন, তাহা আমরা অনুসরণ করিতে পারিতেছি না । সেই সত্যানুরাগ, সেই পরোপকার স্পৃহা, সেই প্ৰতিজ্ঞার দৃঢ়তা, সেই শ্রমশীলতা, সেই সহিষ্ণুতা, সেই বিনয় আমরা কিরূপে পাইব ? আজ আমার হৃদয় তাহার গুণাবলী স্মরণ করিয়া একদিকে লজ্জিত, অপরদিকে উৎসাহিত হইতেছে ; আপনাদের হীনতা অনুভব করিয়া একদিকে যেমন স্নান হইতেছি, অপরদিকে উজ্জল দৃষ্টান্তের প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া এই আশা করি, যে-পথ তিনি প্ৰদৰ্শন করিয়া গিয়াছেন, এই পথে যদি সাহস ও ধৈর্যের সহিত অগ্রসর হইতে পারি, তবেই নিজের ও ভারতের সদগতি। এই ত মানব জীবন, এই তা নবজন্মের অধিকার যে, আমরা ইন্দ্ৰিয়ালালসা, ভোগবাসনা, স্বার্থপরতার ক্ষুদ্র সীমাকে অতিক্রম করিয়া পরের হিতসাধনে জীবন সমৰ্পণ করিতে পারি। পাপের সহিত সংগ্ৰাম, সামাজিক দুৰ্গতি নিবারণের প্রয়াস, অন্ধকারের মধ্যে আলোক বিস্তারের uuS BDL DDD BBBB BBBDLDD LDDDDD ‘ফিরিবার সময় পথে “গার্ডেন’ নামক ভেজিটেরিয়ান রেস্তোর হইতে আহার করিয়া টমাস সাহেবের বাড়িতে আসিলাম । আসিয়া সায়ংকালেয় বক্তৃতার জন্য রামমোহন রায়ের জীবনচরিত পড়িয়া নোট লইয়া প্ৰস্তুত তৎপরে সায়ংকালে আহারান্তে মিঃ টমাস ও তাঁহার গৃহিণীর সঙ্গে বক্তৃতাস্থলে গেলাম। গিয়া দেখি হলটি লোকে পূর্ণ হইয়াছে। সেইদিন