পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৩৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ReV ইংলেণ্ডের ডায়েরি ইহাদের প্রতি দেশের লোকের যে অনুরাগ তাহা ইহারা অনেক যুগের দেশহিতৈষিত সাধুতা ও যোগ্যতার প্রদর্শনদ্বারা ক্ৰয় করিয়াছেন। আমাদের দেশে দুৰ্ভাগ্যবশত এরূপ লোক অধিক পাওয়া যায় না, যাহাদের চরিত্র ও জীবনের গুরুত্ব এত অধিক ; যাহারা এইরূপে বহু-বহু বৎসর পাঠ, চিন্তা, পরিশ্রম ও স্বদেশী-হিতৈষণার দ্বারা লোকের অনুরাগকে উপার্জন করিতে সমর্থ হইয়াছেন। এবার ইংলেণ্ডে আসিয়া অন্যান্য উপকারের মধ্যে এই একটা উপকার হইয়াছে যে, পাকা বনিয়াদের উপরে নিজের কার্যের ভিত্তি স্থাপনের ইচ্ছা জন্মিয়াছে। ছেলেখেলার ন্যায় ভাবুকতা ও ক্ষণিক প্ৰবৃত্তির উপরে কাজ আর করিব নাএইরূপ ইচ্ছা জন্মিয়াছে। কিন্তু আমি দেখিতেছি-গত ১৫ বৎসরের অস্থায়ী, চঞ্চল, চিন্তাবিহীন কাৰ্যপ্ৰণালীতে আমার প্রকৃতি তদ্ভাবাপন্ন হইয়াছে ; ইহাকে শাসনাধীন, স্থায়ী নিয়মাধীন করা এক প্ৰধান সংগ্রামের কর্ম। এবার এই সংগ্রামে প্ৰবৃত্ত হইতে হইবে। মুক্তন কাৰ্যপ্রণালী এবার দেশে গিয়া কিরূপে কাজ করিব ?--অর্থাৎ (১ম) নিজের জন্য, (২য়) পরিবারের জন্য, (৩য়) ব্ৰাহ্মসমাজের জন্য, ও (৪র্থ) দেশের জন্য, কিরূপ প্ৰণালীতে কাজ হইবে ? প্ৰথম, নিজের জন্য-ইংলণ্ডে আসিয়া নিজের শিক্ষার হীনতা বিশেষরূপে অনুভব করিয়াছি। জগতের এত প্ৰকার জ্ঞাতব্য বিষয়ের মধ্যে অতি অল্প বিষয়ই জানি ; কেবল তাহা নহে, শিক্ষার দোষে সে-সকল জানিবার প্রবৃত্তিও বধিত হয় নাই। কেবল জ্ঞান সঞ্চয় করা শিক্ষার উদ্দেশ্য নহে, জ্ঞানে অনুরাগী করা তাহার একটি প্রধান উদ্দেশ্য। বর্তমান শিক্ষাপ্রণালীতে সে ভাবের বিকাশ হুইতেছে না। শিক্ষার প্রধান উদ্দেশ্য সাধিত হইতেছে না ! নিজের শিক্ষার মধ্যে যে গলদ থাকিয়া গিয়াছে, তাহা সংশোধন করিতে হুইবে । মানসিক বৃত্তি সকল সতেজ থাকিতে থাকিতে যথাসাধ্য জ্ঞান সঞ্চয় করিতে হুইবে । BBD DDO DLDL u BDBDDD BHDBBEE