পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


RS R ऐशब्ण८७झ एछigअि করিতে পারে। আমাদিগকে সাধুভক্তিকে সর্বপ্রযত্বে রক্ষা করিতে হইবে, অথচ ইহাকে লৌকিক পূজা বা উন্নতির প্রতিবন্ধকরূপে পরিণত হইতে দেওয়া হইবে না । যখন কোন সম্প্রদায় বা জাতির জীবন বন্ধ জলের ন্যায় স্থিতিশীল হইয়া পড়ে, তখনই এমন যে সাধুভক্তি, তাহাও দূষিত বাম্পের স্বরূপ গৃহয়। সাধুভক্তি যাহাতে উন্নতিকে রোধ করিতে না পারে, এইজন্য ইহাও দেখিতে হইবে যে, চিন্তা ও কার্যের স্বাধীনতার ভাবও লোকের মনে প্ৰবল থাকে। ব্ৰাহ্মসমাজ নূতন সমাজ ; ভূতকালের বন্ধন আমরা অনেকটা ছিাড়িয়া বাহির হইয়া আসিয়াছি। সম্পূর্ণ নূতনভাবে ও নূতন সত্য সকলের উপরে সমাজের ভিত্তি স্থাপন করিতে যাইতেছি। সাধুভক্তি ও গুণিজনের গুণগ্ৰাহিতার ভাব ইহাতে মলিন হুইবার সম্ভাবনা। কেশববাবু সাধুভক্তির অত্যন্ত ছড়াছড়ি করিতেন, তাহার প্রতিবাদ করিয়া সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের জন্ম। সুতরাং সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের সাধুভক্তি হইতে দূরে সরিয়া যাইবার সম্ভাবনা আছে। কংফুচকে একজন রাজা একবার জিজ্ঞাসা করিয়াছিলেন যে রাজ্য সুশাসনে রাখিতে গেলে, কিরূপ লোককে মারা উচিত ? কংফুচ উত্তর করিলেন-“রাজ্য DBuKBB BDBDB Bz DDD DBB L0LYD DDS BD DDS DDS DD দেখিবেন যে, লতা যেমন বাতাসের নিকট নত হয়, তেমনি প্ৰজাকুল তাহার নিকট নত হইবে।” । কংফুচ বিশ্বাস করিতেন, মানবহৃদয় সাধুতার নিকট স্বভাবতই অবনত । এই মহাসত্য যে তিনি ধরিয়াছিলেন, এইখানেই তঁহার মহত্ব ; ইহার গুণেই তাহার পূজার মন্দির নির্মিত হইয়াছে; ইহার গুণেই চীনের রাজমুকুট সকল তাহার চরণে স্থাপিত হইয়াছে। সর্বদেশের সর্বজাতির মধ্যেই সাধুতার প্রতি এই সমাদর দৃষ্ট হয়। ভারতবর্ষের সকল প্রকার অজ্ঞতা কুসংস্কার ও দুনীতির মধ্যে সাধুভক্তি কি প্ৰবল ! আমাদের দেশে মানবহৃদয়ে এই সাধুভক্তি বিশেষ আশ্চৰ্যভাবে প্ৰদৰ্শিত হইয়াছে। এখানে -wল-বুল কঠোর শাসন সত্বেও অতিশয় হীনজাতীয় ব্যক্তিগণ কেবল সাধুতার গুণে দেবপ্রাপ্য সম্মান প্ৰাপ্ত হইয়াছেন। কবীর একজন জোল ছিলেন, তুলসী একজন সামান্ত লোকের সন্তান, নানক