পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনেকাংশে দৈনন্দিন লিপি-অৰ্থাৎ, এই ভায়েরির পরিপূরক। আমরা ঐ ভায়েরির কোন কোন স্থলে উক্ত আত্মচিন্তার কিছু কিছু অংশ গ্ৰহণ করিয়াছি শিবনাথের এই আধ্যাত্মিক চিন্তাগুলি “ইংলণ্ড প্ৰবাসীর আত্মচিন্তা”। এই “রবিবাসরীয় মুগান্তরে” গত ১৯শে মে হইতে ক্রমশ প্রকাশিত হইতেছে। বর্তমান যুগের নব্যসম্প্রদায়ের অনেকেই হয়ত জানেন না। শিবনাথ কে এবং কি ছিলেন। ১৯১৯ খৃষ্টাব্দের ৩০শে সেপ্টেম্বর ৭২ বৎসর বয়সে শিবনাথ পরলোকগমন করেন। মৃত্যুর পরে তঁহার সম্বন্ধে দেশীয় ও বিদেশীয় বিবিধ ইংরাজী এবং বাঙলা দৈনিক ও সাময়িক পত্রে যেসমস্ত সন্দর্ভ প্ৰকাশিত DBBBBDSBDBB BDD DDuD DDD BDBD DB DDBLLYS মত ও বিশ্বাসে র্যাহারা শিবনাথের সমভাবাপন্ন ছিলেন না, প্ৰথমত র্তাহাদের উক্তি হইতে এখানে কিছু কিছু উদ্ধার করা গেল : S দেশনায়ক সুরেন্দ্ৰনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়-সম্পাদিত দৈনিক পত্রিকা ‘বাঙ্গালী’তে সুবিখ্যাত সাংবাদিক পাচকড়ি বন্দ্যোপাধ্যায় লিখিয়াছিলেন "যে নামে অর্ধশতাব্দীর অধিককাল বাঙ্গালার সাহিত্যের এবং ধর্মক্ষেত্রের অর্ধেক অংশ পূর্ণ হইয়াছিল, সে নাম এবং সেই নামধেয় দেহী আজি অনন্তের ক্ৰোড়ে লুকাইল! পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রী বাঙ্গালার এবং আধুনিক শিক্ষিত DBDSBDDBB BD DB DDS DuDB BgES LDBD D S SBBBBDT BBDD একটা অতি বড় নাম ; তিনি ব্ৰাহ্মসমাজের সাহিত্যের একজন সৃষ্টিকর্তা । সমাজ-সংস্কারের ক্ষেত্রে শিবনাথের নাম চুড়ার উপর ময়ুরপাখার প্রদীপ্ত অক্ষরে লিখিত ; এপক্ষে তিনি একজন শ্ৰেষ্ঠ অগ্রণী। ধৰ্মজীবনে শিবনাথ নাম মৃতসঞ্জীবন মন্ত্রের ন্যায় শক্তিধর নাম। পণ্ডিত শিবনাথ সাধারণ ব্ৰাহ্মসমাজের একজন স্ৰষ্টা, পাতা, ধারক ও বাহক। মেধাবী মনীষী প্ৰতিভাশালী শিবনাথ দেশের ও জাতির জন্তু তাহার সবটা পণ করিয়াছিলেন ; স্বেচ্ছায় সাধা করিয়া তিনি দারিদ্র্যকে আলিঙ্গন করিয়া দেশসেবায় প্ৰমত্ত হইয়াছিলেন। এখনকার ছেলেরা বুঝিবে না, পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রী ব্ৰাহ্ম হইয়া, ব্ৰাহ্মসমাজের জন্য জীবন পণ্যু R