পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইংলেণ্ডে আগমন ήηγοί ১৮-৫-৮৮ । অদ্য প্ৰাতে দেখা গেল যে, আমাদের জাহাজ প্রীমাথা হইতে অনেক দূরে রহিয়াছে। আবার হটিয়া যাইতে হইল। প্রাতে সাড়ে সাতটার সময় আমরা গ্রীমাথে পৌছিলাম। সেখানে নামা গেল, নামিয়া আদ্যকার দিন এখানে অবস্থিতি করা গেল। এখানকার পাবলিক বাথ, পিয়ের ও কেল্লা দেখিয়া আসা গেল। মাসেলিসে রাস্তাতে যেমন লোকে লোকারণ্য, এখানে তত লোক দেখা গেল না। ফরাসীরা বুঝি ঘরের বাহিরে থাকিতে ভালবাসে ; ইংরাজেরা বোধ হয়। ঘরের ভিতরটাই ভালবাসে। যাহা হউক, গ্রীমাথে জনতা কিছু অল্প বোধ হইল। আজ দুৰ্গামোহনবাবুর মধ্যম পুত্র সতীশকে(১) অনেক দিনের পরে দেখিলাম। ছেলেটি বেশ চালাক চতুর হইয়াছে এবং জ্ঞানও আছে। আজ আহারের সময় রবিনসন (সত্যের বন্ধু) বলিলেন যে, এখানে যে সকল বাঙ্গালী আসিয়াছে, তাহদের অনেকেই নিজেদের চরিত্রের দোষে बांक्रांौद्ध नाम क्लक अभिधicछ । শ্ৰীমাথে আসিয়া মিঃ টাইসেন (২) ও মিঃ এয়ারটন (২)-এর দুই পত্ৰ পাইলাম। মিঃ টাইসেন। ষে সম্ভাব প্রকাশ করিয়াছেন, তাহা দেখিয়া মন মুণ্ড হয়। টাইসেনের পত্রের উত্তর দেওয়া গেল। তঁহার সঙ্গে মঙ্গলবার দেখা করিবার কথা লিখিলাম। এখানে আসিয়া আপাতত আমার একটা উপকার হইল। আমার সাবধানতা বৃদ্ধি হইবে। সাবধান হইয়া পত্র লিখিতে হইবে, সাবধান হইয়া YD DBBD DBS DBDD D DBB BBDS DDB BBBD EY হইবে। য (১) ইনি ব্যারিষ্টার এস আর দাস, পরে ভারত সরকারের ম্যাডভোকেট জেনােরল ও আইন-সচিব হইয়াছিলেন । (R) Mr. Tyssen ve Mr. Ayrton-Sea Sfatisfita, sitt ব্ৰাহ্মসমাজের প্রতি বন্ধুভাবাপন্ন। 被.g.8