পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/১০৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোড়শ পরিচ্ছেদ ।

  • →歌来

বিসজ্জন । “ভূল ভূতপূৰ্ব্ব কথা, ভুলে লোক যথা স্বপ্ন-নিদ্রা অবসানে ! এ চিরবিচ্ছেদে এইহে ঔষধমাত্র, কহিনু তোমারে ।” বীরাঙ্গন । সেই রাত্রে ছায়ম স্ত্রীর সহিত সাক্ষাতের পর হইতে অদ্য গ্রায় একমাস গত হইল রাজকুমার নিরুদেশ । ছায়াময়ী পাড়া প্রতিবেশীদিগের হাতে পায়ে ধরিয়া যথাসাধ্য অনুসস্বান করাইল, কিন্তু কেহ কোন প্রকার সংবাদ অানিতে পারিল না । প্রথম প্রথম সকলেই রাজকুমারের নিরুদেশ সংবাদে সহানুভূতি প্রকাশ করিয়াছিল ; এমন কি অনেকে পাশ্ববর্তী দুই চারিখালি গ্রামেও অনুসন্ধান করিয়াছিল, কিন্তু এখন আর, তাহার করে না, করিতে বলিলে বরং রাগ করে । অনাথিনী ছায়াময়ী কেবল বিরলে রোদন করে । আরও একমাস গেল, কিন্তু রাজকুমারের কোন সংবাদ জাসিল না। প্রথম হইতেই ছায়াময়ী জ্বরে পীড়িত হইয়াছিল, ভালরূপ সারতে পারে নাই ;-তাহার উপর এই সকল ভাবনা চিন্তায় পুনরায় জ্বরে পড়িল । প্রথম বারে সরস্বতী সেবা শুশ্ৰুষা করিয়াছিল, ডাক্তার কবিরাজ দেখাইয়াছিল ; কিন্তু এবার কি জানি কি কারণে, সেরূপ করিল না । প্রত্যহ বৈকালে জর হয়,-ছায়াময়ী ক্রমে শয্যাশায়িনী হইল ।