পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/১১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টাদশ পরিচ্ছেদ । 30: سسسسسه ن رئ. مسمسسمسسسسه মন যে মান মানেন । “এখন ভূলিনি তোরে ওরে কুহকিনী ষ্টায় । জনকের ভগ্ন আশে, জননীর ষ্টা হুতাসে। সমাজে কলঙ্ক শ্বাসে, মুখ তুলে চাওয়া দায় পরাণ লুকায়ে কঁাদি তবু তোর সঙ্গ চায়।” কনকাঞ্জলী । মুখে দুঃথে যেমন করিয়াই হইক বহুকাল হইতে রায়ের গৌরাঙ্গপুরে চারিচাল বাধিয়া ঘর করিতেছিল ; এতদিনের পর তাহা ছারখার হইল। রাজকুমার নিরুদেশ, সরস্বতী কোথায় গিয়াছে কেহ তাছা জানে না, ছায়াময়ী পুত্র দুইট লইয়া পিত্রালয়ে গিয়াছে, রাজকুমারের মাত এখনও কুলীন গায়ে পাচিকার কার্য্য করিতেছেন । যে রাত্রে সরস্বতী গৃহত্যাগ করিল তৎপর দিবস জমিদারের লোকজনে রাজ কুমারের বাটী ভাঙ্গিয় সমভূম করিয়া দিল ; দরিদ্রের গৃহসামগ্ৰী যাহা দুই চারিট ছিল ভtহার কতক জমিদারের লোকে, কতক পাড়ার লোকে লইয়া গেল। ইক্ৰচন্দ্রের সকল গোলযোগ চুকিয় গেল কিন্তু মনের গোলযোগ চুকিল কৈ! ক্রোধে ঘৃণায় প্রথম দুই চারি দিন ইন্দ্র চন্দ্রের বড় কষ্ট হয় নাই ; ক্রমে যত রাগ পড়িতে লাগিল ততই কষ্ট বাড়িতে লাগিল । প্রথম কষ্ট যে দোষে