পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/১৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশিষ্ট । سه پي س ভাইকোটের বিচারে রামের ধন শ্যাম পাইল ; ইন্দ্রচন্দ্রের পনার আন তিন পাইয়ের অংশ, এক পাইয়ের অংশীদার কৃষ্ণধন পাইল । পাইল বটে, কিন্তু তাহার পনর আনা নেড়ে পিয়াদ, মাষ্ট্রার মহাশয়, আর ভগিনী-পতি শুiমবাবুর উদরস্থ হইল । কৃষ্ণধন অতি সামান্তই পাইয়াছিলেন । “অধনেন ধনং প্রাপ্য তৃণবং মন্বতে জগৎ’ এই মহাবাক্যের সার্থকতা সম্পাদিত তইতে অধিক দিন বিলম্ব হইল না । বাবুয়ানা করিয়া অতি অল্প দিনের মধ্যেই কৃষ্ণধন সমস্তই বার ভূতকে খাওয়াইয়। এখন হ৷ অন্ন যে অন্ন করিতেছেন । শ্রামবাবু খুব সেয়ান লোক ; ইতিপূৰ্ব্বে যখন কলিকাতায় চাকরী করিতেন, সেই সময়ে দশ হাজার টাক তহবিল ভাঙ্গিয়া গা ঢাকা দিয়াছিলেন ; তখন একাদশ বৃহস্পতির পাল সুতরাং যে সাহেবের টাক ভাঙ্গিয়াছিলেন তিনি ওয়ারেন্ট করিয়াও ধরিতে পারেন নাই ; দেশে আসিয়া খালকের যাহ। কিছু ছিল তাহাও নিৰ্ব্বি বাদে হজম করেন । কিন্তু আর সহ হইল না ; বদ হজ নী বেনে জল ঢুকিয়া সাবেক জল পৰ্য্যন্ত বাহির করিয়া লইল । একাদশ বৃহস্পতির সঙ্গে রন্ধ গত শনির একটু দৃষ্টি ছিল ৰলিয়া অকস্মাৎ এক দিন তহৰিল তছরুপের ওয়ারেন্ট আসিয়া স্যামবাবুকে গ্রেপ্তার করিল। আর রাজা বাহাদ্বরের চূড়ান্ত বিচারে তিন বৎসরের জন্য শ্ৰীঘর হইল। অকস্থাৎ গৃহদাহে