পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ । ෆථි. রাজকুমার ধীর, সত্যবাদী, পরোপকারী বলিয়া গ্রামের মধ্যে খ্যাতি ছিল ; বস্তুতঃ তাহাই ঠিক । ইচ্ছা করিলে রাজকুমার জমীদার সরকারে থাকিয়া অনেক উপায় করিতে পারিত ; কিন্তু এ উপায়ে উপার্জন করাকে রাজকুমার বিশেষ স্বণ করিত। এই জন্ত রাজকুমারকে জবাব দিবার কালীন চন্দ্র শিখর চট্টোপাধ্যায় মহাশয়ের চক্ষু দিয়া জল পড়িয়াছিল । শীঘ্র শীঘ্র হিসাব নিকাশ পাইবার জন্ত একদিন একজন রাজকুমারকে দশটাক ঘুষ দেয়, রাজকুমার টাকা কয়টা নিজে না লইয় তৎপর দিবস সেই লোক সমেত টাকা দশটা জমীদার সরকারে দাখিল করিয়া দিল। সেই রাজকুমার অদ্য মধু ঘোষের আট গণ্ডী পয়স হস্তে লইয়া ভাবিতেছে, “জমা দিব কি না ।” রাজকুমার অনেকক্ষণ পৰ্য্যন্ত মনের সহিত যুদ্ধ করিয়া শেষ পরাস্ত হইল। অবশ্যক—বিশেষ অবিশুক—এমন বিশেষ অবিশুক যে, এক মুষ্টি অন্নের জন্য প্রাণের প্রাণ স্ত্রীপুত্র সমস্ত দিন উপবাসী রহিয়াছে—সেই অবিখ্যক—নিয়ম, অনিয়ম, আইন, আদালত কিছুই’মানিল না ; বেগুণ কয়েকট সমেত মধু ঘোষের অtট গও পয়সা রাজকুমারকে উদরসাৎ করাইল । মন যেন বলিল,“দিয়া কাজ নাই ।” রাজকুমার তাহাই করিল ; সেই আট গণ্ডী পয়সায় চাউল, দাইল প্রভূতি আবশ্যকীয় অাহারীয় झदानि क्लग्न कब्रिग्रा शृंप्इ ८*ीश्नि ! ब्रांजकूभां८ब्रद्र श्रांखिकांज्ञ দিন কাটিয়া গেল ।