পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अश्लेश श्रृंतिद्वध्झन । . 3S আমার অদৃষ্ট ভাল, তাই ডাক্‌বামাত্রেই এসেচে। ও তোমার गाना नब्र ” खेनानि श्रृं८इह चांद्र खेथूङ श्ब ७क बाडि श्रठि সাবধানে ডাকিল “রাজকুমার এসেচে ।” রাজকুমার বাছির হইতে বলিল, “আজ্ঞ ই৷ ” রাজকুমার ভিতরে প্রবেশ করিলে পূর্বের ন্যায় দ্বার রুদ্ধ হইল । গৃহ প্রবেশ মাত্র রাজকুমার একট। উৎকট গন্ধ পাইল । সন্দেহ হইল ; মনে মনে বলিল “মাষ্টার মহাশয় কি মদ খান ?” রাজকুমার এক মনে কি ভাবিতেছে দেখিয়া মাষ্টার মহাশয় বলিলেন, “রাজকুমার ভাব চো কি ? হেথাতো কেও তোমার অচেনা নয় ।** রাজকুমার মুখ নত করিয়া বলিল “আঙ্কে না ।” গৃহের মধ্যে মাষ্টার মহাশয়কে লইয়া চারিজন লোক উপস্থিত ছিলেন। রাজকুমারের সহপাঠি বাল্যবন্ধু সেই শুIম বাবু, কৃষ্ণনগরের পোষ্টমাষ্টার হারাধন বাবু, গ্রাম্য গুরু মহাশয় দেবেন্দ্র ভট্টাচাৰ্য্য অার স্বয়ং ইন্দ্র চন্দ্রের মাষ্ট্রার মহাশয় । ইহার। সকলেই রাজকুমারের পরিচিত । পোষ্ট মাষ্টার মহাশয় ধমক খাইয়া এতাবৎ চুপ করিয়াছিলেন,কিন্তু আর থাকিতে পারিলেন না । উভয় হস্ত একত্র করিয়া উৰ্দ্ধদিকে উঠাইয়া বলিলেন, “রায় মহাশয় প্রাতঃ প্র-র ।” এই দুঃখের সময়েও রাজকুমারের মুখে হাসি আসিল । বলিল, “চয়েচে আমি অমনই মাশীৰ্ব্বাদ কোচি " গুণমবাৰু এতাবৎ মুখ নত করিয়া বসিয়া ছিলেন ; লজ্জার রাজকুমারের সঙ্গে কথা কহিতে পারেন নাই। এইবার পোষ্ট্রমাষ্টারকে লক্ষ্য করিয়া বলিলেন, “আবার মাতলামী ? মাষ্টার মহাশয়কে পূৰ্ব্বেই বলে ছিলেম যে, একে এত খাওয়াবেন না।”