পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নবম পরিচ্ছেদ । ള്ളങ്ങ*ജ്ഞള്ള অধঃপতনের চুড়ান্ত । “গোমূত্রমাত্রেণ পয়োবিনষ্টং, তক্রস্য গোমূত্র শতেন কিম্বা । অত্যন্নপাপৈর্বিপদ; গুকীনাং, পাপাত্মানাং পাপ শতেন কিম্বা ॥” মন্দারমালা । গোমূত্র স্পর্শে দুগ্ধ বিনষ্ট হইল, কিন্তু তক্রের কিছুই করিতে পারিল না । পোষ্টমাষ্টার বাৰু আকণ্ঠ মদ্য পান করিয়া ও প্রভাতে উঠিয়া বসিয়াছেন, আর রাজকুমার চারি পাচ গ্লাসে এখন পর্য্যন্ত মৃতের ন্যায় পতিত । সংসারের কোন জ্বালা নাই, যন্ত্রণ নাই,–নির্ভাবনায় নিদ্র। যাইতেছে। মদের অপার মহিমা । বেলা হইয়াছে দেখিয়া পোষ্টার বাৰু ডাকিলেন, “রায় মহাশয়-রায় মহাশয়’ ; কোথায় বা রায় মহাশয় আর কোথায় ব। কে । রায় মহাশয় অসাড়ে নাক্ ডাকাইয়া নিদ্রা যাইতেছে । পোষ্টমাষ্টার বাবু রাজকুমারের গায়ে ধাক্কাদিয়া পুনরায় ডাকি লেন, “রায় মহাশয় --রায় মহাশয়, উঠুন উঠুন, বেলাহয়েচে ।” “এ এ'- শব্দ করিয়া রাজকুমার; চক্ষু উন্মীলন করিল। পোষ্টমার বাবু বলিলেন, “উঠে পড়ুন বেলা হয়েচে।”