পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দশম পরিচ্ছেদ । । ૭ ૭ فاكتسـ নূতন পোষ্ট মাষ্টার বাবু বাসায় আসিয়া অপরিচিত লোক রাজকুমারকে দেখিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “তুমি কে ?” - রাজকুমার পরিচয় দিয়া বলিল, “পোষ্টমাষ্টার বাৰু কিম্ব। মাষ্টার মহাশয় ইহাদের এক জনের সঙ্গে দেখা করবার জন্ত বসে অাছি।’ নূতন পোষ্টমাষ্টার বাবু বলিলেন, “আগেকার পোষ্টমাষ্টার বাবু কোথায় বদলী হয়েছেন, এখন আমিই এখানকার পোষ্টমাষ্টার। আপনার মাষ্টার মহাশয়কে আমি চিনি না, আর এখানে তারা কেছ আসে ন ন । ” রাজকুমারের মাথায় আকাশ ভাঙ্গিয়া পড়িল, “বলিল তবেকি তাহণদের কার ও সঙ্গে দেখা হবে না ?” “আজ্ঞে না ’ বলিয়া নূতন পোষ্টমাষ্টার বাবু মুখ ফিরাইলেন । ভাবিতে ভাবিতে রাজকুমার পোষ্ট অফিসের উদ্যানবাটী পরিত্যাগ করিয়া বরাবর গুরু মহাশয়ের পাঠশালা অভিমুখে চলিলেন । গুরুমহাশয় অদ্য দশ বার দিন হইল পাঠশাল বন্ধ করিয়া বাট গিয়াছেন । রাজকুমার গ্রামের লোকের মুখে ইহা ও শুনিল যে, বোধ হয় গুরুমহাশয় আর এদেশে আসি বেন না । রাজকুমার দশদিক অন্ধকার দেখিল । ইচ্ছ। আর কাহার ৪ সঙ্গে দেখা হউক না হউক মায়ার মহাশয়ের সঙ্গে দেখা হইলেই হইল । ইচ্ছা কাৰ্য্যে পরিণত হইল ; রাজকুমার পুনরায় মাঠ পার হইয়া নিজ গ্রামের জমীদার চট্টোপাধ্যায় মহাশয়ের ৰাটীর নিকটে আসিয়া উপস্থিত হইল । কিন্তু সাহস করিয়া বাটীর মধ্যে প্রবেশ করিতে পারিল না রাজকুমারের মনে উই