পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


• ਝੋਂ5ੈ | পুত্রদিগের জন্য রাজকুমার জাল করিয়াছিল আজ পুলিসের ভয়ে তাহাদিগকে পরিত্যাগ করিতে হইল । রাজকুমার আর গৃহে আইলে না, গ্রামেও কেহ তাহাকে দেখিতে পায় না । দিনের বেলায় রাজকুমার এ গ্রাম সে গ্রাম করিয়৷ বেড়ায় ; নিতান্ত ক্ষুধ বোধ হইলে ব্রাহ্মণ পরিচয় দিয়া লোকের বাড়ি ভিক্ষা করির খায় ; রাত্রে যথা তথা পড়িয়া থাকে ৷ পাচদিন এই রূপে কাটাইয়া ছয় দিনের দিন গভীর রাত্রে রাজকুমার নিজ গৃহদ্বারে দাড়াইয়া আস্তে আস্তে ডাকিল,“ছায়া,ছায়ায় য়ী ।” রাজকুমার ছায়াময়ীর হস্তে খরচের জন্য যে কয়েকটি টাকা দিয়াছিল বুদ্ধিমতি ছায়াময়ী তাহার মধ্যে যাহ। কিছু বাচাইয়াছিল, রাজ কুমারের অবর্তমানে কায়ক্লেশে তাহ দ্বারা চারিদিন সংসার চালাইয়। অদ্য সমস্ত দিবস অনাহারী । জনৈক প্রতিবেশিনী শিশু পুত্র দুটিকে চারটা ভাত দিয়াছিল বলিয়া তাহার খাইতে পাইয়াছে। রাজকুমারের মাতা যথায় পাচিকার কার্য্য করিতেছেন তথা হইতে রাজকুমারের ভগিনী সরস্বতীকে কিছু থাবার পাঠাইয়া দিয়াছিল ; সে তাহ খাইয়া নিদ্রা দিতেছে, ছায়ামীর মুখের দিকে কেহ ভাকায় নাই, তাই ছায়াময়ী দুই হাত বুকে দিয়া পড়িয়া আছে । বৈকালে একঘর প্রতিবেশী ছায়াময়ীকে খাইবার জন্য ডাকিয়াছিল কিন্তু তাহারা বারেন্দ্র শ্রেণী ব্রাহ্মণ বলিয়। ছায়াময়ী থাইতে যায় নাই । ছায়াময়ী নিদ্রা যায় নাই । দরিদ্রের গৃহ সামগ্রী ছিন্ন মাছরের উপর তৈলসিক্ত উপাধানে মুখ লুকাইয়া কঁাদিতেছিল ; রাজকুমারের কণ্ঠস্বর কর্ণে প্রবিষ্ট হইবা মাত্র তাড়া তাড়ি দরজা খুলিয়া দিয়। গৃহ অন্ধকার, রাজকুমার দলিল “প্রদীপট। জাল |’ گفتختحع