পাতা:উপকথা.pdf/১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఉ ইছাকে সঙ্গে করির কলিঙ্কাস্তায় লইয়া যান, ক্লাব এ অনাধিনী আপন পত্রালয়ে পহুছিতে পাৱে কৃষ্ণদাস বাৰু সঙ্গত হইলেন। জামি তাহার অন্তঃপুৱে গেলাম পরদিন তাহার প্রস্থিৰাৱস্থ স্ত্রীলোকদিগের সঙ্গে কলিকাতা স্বাত্র করিলাম। প্রথমদিন চারি পাঁচ ক্রোশ স্থাটির গঙ্গাতীরে আসিতে হইল। পর দিন নৌকায় উঠলাম। - কলিকাতায় পহুছিলাম। কৃষ্ণদাস বাবু কালীঘাটে পূজা দিতে মাসিয়াছিলেন । ভবানীপুরে বাসা করিলেন। আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “তোমার খুড়ার বাড়ী কোথায় ? কলিকাতায় না ভবানীপুরে ?” - তাছা অামি জানিতাম না । জিজ্ঞাসা করিলেন, “ কলিকাতার কোন জায়গায় তাহার রাসা ?” - তাহা অামি কিছুই জানিতাম না । আমি জানিতাম, যেমন মহেশপুর একখানি গগুগ্রাম, কলিকাতা তেমনি একখানি গণ্ডগ্রাম মাত্র । একজন ভদ্রলোকের নাম করিলেই লোকে বলিয়। দিবে। এখন দেখিলাম যে, কলিকাতা অনন্ত অট্টালিকার সমুদ্র বিশেষ। আমার জ্ঞাতি খুড়াকে সন্ধান করিবার কোন উপায় দেখিলাম না । কৃষ্ণদাস বাৰু আমার হইয়া অনেক সন্ধান করিলেৰ, কিন্তু কলিকাতায় একজন সামান্য গ্রাম্য লোকের ওরূপ সন্ধান করিলে কি হইবে ? : - কৃষ্ণদাস বাবু কালীর পূজা দিয়া কাষ্ঠী যাইবেন, কল্পনা ছিল পূজা দেওয়া হইল, এক্ষণে সপরিবারে কাশী যাইবার উদ্যোগ করিতে লাগিলেন আমি কাদিতে লাগিলাম। তিনি ক্ষ ছিলেন, “ তুমি আমার কথাষ্ট্রন। রাম রাম দত্ত্ব নামে