পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হোসেনসাহ । NONO গুজরাট ও দাক্ষিণাত্যে গমন করে, ও তথায় অবস্থিতি করিতে থাকে। এইরূপে হোসেনসহ রাজকাৰ্য্যের সুবন্দোবস্ত করিয়া নিশ্চিন্ত ভাবে রাজ্য শাসনে প্ৰবৃত্ত হইলেন। জন সাধারণে র্তাহার শাসনে অত্যন্ত সন্তুষ্ট হইতে লাগিল । হোসেনসাহ গৌড় হইতে রাজধানী অন্তরিত করিয়া তাহার নিকটবৰ্ত্তী একডাল দুর্গে অবস্থিতি করেন। তিনি একডাল দুৰ্গকে নিরাপদ মনে করিয়া তথায় বাস করিয়াছিলেন । হোসেন সাহ সৈন্যের সুব্যবস্থা, রাজধানীর বন্দোবস্ত প্ৰভৃতি করিয়া দেশশাসনে প্ৰবু ও হন। তিনি পাশ্ববৰ্ত্তী ও সামন্ত রাজগণকে বশীভূত করিয়া উড়িষ্যা পৰ্য্যন্ত আপনার অধিকার বিস্তার করিয়াছিলেন। হোসেনসাহ এরূপ দৃঢ়ভাবে রাজ্য শাসন করিয়াছিলেন যে, তাহার DDBBBDB BDD DDBD DD BDDDBDB0S JB BK DD BDDD S তাহার রাজত্বের (প্ৰথম ভাগে জৌনপুরের অধিপতি সা হোসেন দিল্লীর সিংহাসনলাভের জন্য অনেক বৎসর ব্যাপিয়া বিলোল লোদার সহিত বিবাদে প্ৰবৃত্ত হইয়াছিলেন । কিন্তু অবশেষে সেকেন্দর লোদী কর্তৃক পরাজিত হইয়া জৌনপুর হইতে বিতাড়িত হন ও বাঙ্গালায় আসিয়া আশ্রয় লইতে বাধ্য হইয়াছিলেন । হোসেন সাহ, স্যা হোসেনের প্রতি সন্মান প্রদর্শন করিয়া তাহার ও তাহার পরিবারবর্গের জন্য তদ্বিংশানুযায় বৃত্তি নিৰ্দেশ করিয়া দেন । সা হোসেন গৌড়ে অবস্থিতি করিয়া তথায় দেহ ত্যাগ করেন। অদ্যাপি গৌড়ের নিকট তঁাহার সমাধিমন্দির দৃষ্ট হইয়া থাকে। পূর্বে বিহার প্রদেশ জৌনপুরের অধীন ছিল। সা হোসেন জৌনপুর হইতে বিতাড়িত হইলে, বাদসাহ সেকেন্দর বিহার দিল্লী সাম্রাজ্যভুক্ত করিয়া লন । অতঃপর তিনি বঙ্গরাজ্য আক্রমণের জন্য অগ্রসর হইতেছিলেন । হোসেন তৎসংবাদ শ্রবণে বিচলিত হইয়া সেকেন্দর বাদাসাহের সহিত সন্ধি করিবার মানসে স্বীয় পুত্ৰ দানিয়েলকে তাহার সমীপে প্রেরণ করেন। সেকেন্দর BDBDD DBDB SsBDDB DKBBDB DDD S SDBB DB D KBBBDB BDD DTBDt করিয়াছিলেন তাহা দিলীসাম্রাজ্যভুক্ত করিয়া লইতে ইচ্ছা করেন, অবশেষে সন্ধিতে তাহাই স্থির হয়। তজৱন্ত ৰিহার, তিব্বত ও সরকার সারণ দিল্লীসাম্রাজ্য