পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


08yw ঐতিহাসিক চিত্র। গৌড়ের স্বাধীন নরপতিগণ যে সিংহাসনকে ধন্য করিয়াছিলেন, তাহাতে উপবিষ্ট হইয়া যুবক দায়ীদ স্বাধীনতার রসাস্বাদের জন্য ব্যগ্ৰ হইয়া উঠেন। যদিও তঁাহার পিতা সুলেমান মধ্যে মধ্যে উপহার প্রদান করিয়া “দিল্লীশ্বরে বা জগদীশ্বারো বা’ কে সন্তুষ্ট করিবার চেষ্টা করিতেন, তথাপি তিনিও একেবারে গৌড়রাজ্য হইতে স্বাধীনতা-লক্ষ্মীকে চিরনির্বাসিত করেন নাই। দায়ুদের মনে যে এ বিষয়ের উদয় হয় নাই এমন নহে। অধিকন্তু তিনি পিতৃপরিত্যক্ত বহু সহস্ৰ অশ্বারোহী, পদাতি, কামান ও হস্তী এবং ধনরত্নপরিপূর্ণ রাজকোষ দেখিয়া স্বাধীনতা-লক্ষ্মীকে সুপ্ৰতিষ্ঠিত করিবার জন্য অত্যন্ত ব্যগ্ৰ হইয়া পড়িলেন। ঐতিহাসিকেরা বলিয়া থাকেন যে, তিনি a০ সহস্ৰ অশ্বারোহী, ১ লক্ষ ৪০ সহস্র পদাতি, ২০ সহস্ৰ কামান, ৩। সহস্ৰ ৬ শত হস্তী ও বহুশত রণতরীর অধিকারী হইয়াছিলেন । তদ্ভিন্ন তঁাহার ধনরত্বেরও। ইয়ত্ত ছিল না । যিনি এইরূপ বিপুল ধন ও সম্পত্তির অধিকারী, তিনি যে সহজেই অধীনতাশৃঙ্খলকে দুরে পরিহার করিবেন, তাহাতে কি সন্দেহ থাকিতে পারে ? সেই জন্য দায়দ খা সিংহাসনে উপবিষ্ট হইয়াই আকবর বাদাসাহের অধীনতা অস্বীকার করিয়া আপনাকে স্বাধীন নরপতি বলিয়া ঘোষণা করিলেন । কেবল আপনাকে স্বাধীন বলিয়া ঘোষণা করিয়াই দায়দ ক্ষান্ত হন নাই। তিনি মোগল সামাজোও হস্তপ্রসারণ করিতে প্ৰবৃত্ত হন। গাজীপুরের নিকট গঙ্গাতীরস্থ জামনিয়া দুর্গ মোগল সাম্রাজ্যের সীমান্ত সৈন্যাবাসরূপে অবস্থিত ছিল। দায়িদ সৰ্ব্বপ্রথম জামনিয়া দুর্গ অধিকার করিয়া বসেন। বাদসহ সে সময়ে গুজরাট প্রদেশে অবস্থিতি করিতেছিলেন, দায়দের ঔদ্ধত্যে ক্রুদ্ধ ಕೌನ್ಸff! জৌনপুরের শাসনকৰ্ত্তা মুনিম খাকে বিহার আক্রমণের জন্য আদেশ প্ৰদান করিলেন। মুনিম খাঁ বিরাট মোগল বাহিনী লইয়া বিহারে /উপস্থিত হইলে, দায়ুদের আমীর উল ওমর লোদী খাঁ তাহার গতিরোধ করেন। উভয় পক্ষেয় কয়েকটি সামান্য যুদ্ধের পর মুনিম খাঁ ও লোদী খাঁ দিলীশ্বরের সহিত গৌড়াধিপের সন্ধির বাবস্থা করিয়া দেন। উক্ত সন্ধিতে এইরূপ স্থির হয় যে, মোগল সৈন্ত বিহার হইতে চলিয়া যাইবে, কিন্তু গৌড়াধিপকে নগদ দুটি