পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৭২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S Cly ঐতিহাসিক চিত্ৰ । যুদ্ধক্ষেত্ৰ হইতে পলায়ন করিয়া দায়ুদ কটকদুর্গে উপস্থিত হন ও তথার কিছুকাল অবস্থিতি করিবার সংকল্প করেন। রাজা তোেড়রমল্ল ও অন্যান্য আমীরগণ প্ৰথমে দায়ুদের বিরুদ্ধে প্রেরিত হন। মুনিম খাও তেঁাহার সৈন্যসকল হতাহতদিগের ব্যবস্থা করিবার জন্য কিছুকাল অবস্থিতি করেন। রাজা ভদ্র কের " নিকট উপস্তিত হইয়া, দায়ুদের কটকদুর্গে অবস্থিতির সংবাদ পান দায়ুদ পুনৰ্ব্বার তাহাদিগকে বাধা দিবার জন্য সজ্জিত হইতেছিলেন। রাজ খানখানানের নিকট এই সংবাদ পাঠাইলে, খানখানান কটকাভিমুখে অগ্রসর হন ও মহানদীর তীরে উপস্থিত হইয়া শিবির সন্নিবেশ করেন। দায়ুদ বারম্বার পরাজয়ের কথা স্মরণ করিয়া বিশেষতঃ গুজর খ্যার মৃত্যুতে অত্যন্ত অবসর হইয়া পড়িয়াছিলেন। এক্ষণে খানখানানের উপস্থিতি শুনিয়া তিনি যুদ্ধসংকল্প পরিত্যাগ করিয়া সন্ধির জন্য ইচ্ছক হইয়া পড়েন। তিনি আফগান সর্দার দিগের সহিত পরামর্শ করিয়া খানখানানের নিকট এক দূত প্রেরণ করেন দুত থানখানানের নিকট উপস্থিত হইয়া দায়ুদের অভিপ্ৰায় জ্ঞাপন করিয়া বলে যে, “মুসল্মান কর্তৃক মুসল্মানের ধ্বংস শোভনীয় নয়, তবে গৌড়াধিপ আপনার জীবিকার জন্য বিস্তৃত বঙ্গ রাজ্যের যৎকিঞ্চিৎ অংশ মাত্ৰ প্ৰাৰ্থন করেন । তাহা প্ৰাপ্ত হইলে তিনি সস্তুষ্ট থাকিবেন ও আর কখনও বিদ্রোহা, চরণ করিবেন না।” খান থানান দায়ুদের প্রস্তাব অবগত হইয়া অন্যান্য আমীরগণের সহিত পরামর্শ করিয়া তাঁহারই প্রস্তাবে সম্মতি দিলেন ও দায়ুন্দকে স্বয়ং উপস্থিত হইবার জন্য বলিয়া পাঠাইলেন। এই প্ৰস্তাবে কেবল রাজা তোড়ারমল্ল আপত্তি করিয়াছিলেন। কারণ, তিনি দায়ুদকে বিশেষরূপেই জ্ঞাত ছিলেন। কিন্তু ঊর্তাহার আপত্তি খানখানানের রুচিকর হয় নাই। পরদিন খানখানান। আপনার দরবার সজ্জিত করিয়া উপবিষ্ট হইলেন, অন্যান্য আমীরগণও স্ব স্ব পদমৰ্য্যাদানুসারে উপবেশন করিলেন। সৈন্যসকল অস্ত্রশস্ত্ৰে সজ্জিত হইয়া দণ্ডায়মান রহিল। দায়ুদ তাহার। আফগান সর্দার LS BYL CKDDB LLLBLB DD LLS DDDL LL BBBBBL LBGL LLLLL DDS