পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Y(0 ঐতিহাসিক চিত্র। হইয়া আমীরগণকে ও সৈন্যদিগকে গৌড়ে যাইবার জন্য আদেশ দিলেন। अवथ ऊँiशब्र अiटनन अडिश्रानिड श्रड दिगव चणि ना। কিন্তু সে সময়ে গৌড়ের জলবায়ু অত্যন্ত দুষিত হইয়াছিল, এবং ভূমিও জলসিক্ত ছিল। বিশেষত বর্ষায় আরও দুষিত হইয়া পড়ে। ক্রমে সৈনিকগণের ও অধিবাসীদিগের মধ্যে পীড়ার সঞ্চার হইতে লাগিল। অবশেষে তাহ প্ৰবল মহামারীতে পরিণত হইল। প্ৰতিদিনই শত শত সহস্ৰ সহস্ৰ হিন্দু মুসন্মান মৃত্যুমুখে পতিত হইতে লাগিল। তাহাদিগের মৃতদেহ দগ্ধ বা সমাহিত করার উপায় না থাকায়, সমস্তই গঙ্গাগর্ভে নিক্ষিপ্ত হইতে লাগিল । * তাহাতে মহামারী আরও প্ৰবল হইয়া উঠিল।6অনেক সন্ত্রান্ত আমীর তাহাতে প্ৰাণ বিসর্জন দিলেন। অবশেষে মুনিম খাও সেই মহামারীতে চিরদিনের জন্য চক্ষু মুদিত করিলেন। খৃষ্টীয় ১৫৭৫ অব্দে গৌড়ের ভয়াবহ মহামারী আবির্ভূত হইয়াছিল। এরূপ লোক, ংসকর মরক বঙ্গদেশে অল্পই সংঘটিত হইয়াছে বলিয়া বোধ হয় । , খানখানান মুনিম খাঁর মৃত্যু-সংবাদ পাইয়া দায়ুদ খাঁ আবার বাঙ্গলা অধি কারের জন্য ইচ্ছক হইলেন। তিনি মুনিম খাঁর সহিত সন্ধির কথা বিশ্বত হইয়া মোগলদিগকে বাঙ্গলা হইতে বিতাড়িত করিবার জন্য যুদ্ধসজ্জা করিতে লাগিলেন। অন্যান্য আফগান সর্দারেরা তঁহার সহিত যোগদান করিলে, তিনি উড়িষ্যা হইতে টাড়া অভিমুখে অগ্রসর হন। মুনিম খাঁর মৃত্যুর পর মোগলের সাহামখ জলৈারকে আপনাদের অধ্যক্ষ মনোনীত করিয়াছিল। কিন্তু দায়ুদের সহিত প্রতিদ্বন্দিতায় অসমর্থ হইয়া উক্ত মোগল সেনাপতি মোগল সৈন্যদিগকে লইয়া বাঙ্গলা পরিত্যাগ করিলেন, এবং পাটনা ও হাজী it "By degrees the pestilence reached to such a pitch that men were unable to bury the dead, and cast the cropses into the river.' (Tabkuti Akba ri). "Thousands died every day and the living tired with burying the dead threw them into the river, without distinction of Hindoo or Muhammedan.” (Stewart) "Out of the many thousand men that were sent to that country, no more than a hundred were known to have returned in safety, (Badaunt)