পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/২৪৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


मझ्द्रखि ब्रख्दछ७ cमका। RRKS) বা কাণ্ডজ্ঞান সম্পন্ন ব্যক্তি উহা গ্ৰহণ করিতে সম্মত হয় ? বিশেষ ভেট কথাটা এস্থলে প্ৰযুক্ত হওয়া উভয়ের পক্ষেই লজ্জার কথা হইয়াছে। যাহারা হিন্দুসমাজ সম্বন্ধীয় বিশেষ বিবরণ অবগত আছেন, তাহারা অবশ্য পরিজ্ঞাত আছেন যে, প্রতিগ্রহ লইয়া পারত পক্ষে কোন সম্পন্ন ব্যক্তিই তীর্থ ভ্ৰমণ বা বাস করিতে সম্মত হন না। নিঃস্বলোকের পক্ষেই এই বিধান । এইরূপ অবস্থায় রঘুনন্দন জমিদার পুত্র হইয়া পরের সাহায্যে কাশীবাসী হইয়া ছিলেন, এ কথাটা কি অস্বাভাবিক নয় ? যদি তাহার অর্থকৃচ্ছতাই ঘটিয়া ছিল। তবে তাহার উপযুক্ত ভ্রাতুষ্পপুল রামপ্রসাদ, রামগঙ্গা, রামেশ্বর প্রভৃতির নিকট সাহায্য গ্ৰহণ করিলেই পৰ্য্যাপ্ত হইত। তাহা না করিয়া জ্ঞানবান রঘু নন্দন রাজবল্লাভের গলগ্ৰহ হইলেন ; তবে রঘুর কৃপণতা দোষ ছিল বটে, DBDD DB DBBDDD BDBB DDD S SBD DBDBDBB BBBBB DD DDBBBD DBBDD সরকারসহ এক খণ্ড ভূমি পরিবাৰ্ত্তন করিয়া, তদধিকৃত কাশীর এক খণ্ড ভূমি গ্ৰহণান্তে তদুপরি মন্দির নিৰ্ম্মাণ করিয়া শিবলিঙ্গ প্রতিষ্ঠা করেন। যিনি थछत्रूद्ध সমৰ্থ তিনি যে পরের অর্থ গ্ৰহণ করিয়া কাশীবাসী হইয়াছিলেন, YLLDB BB DDJ0 BBDD DBDB BDB DD BDD S প্ৰাচীন কিম্বদন্তী হইতে অবগত হওয়া যায় একদা কৃষ্ণ রামের পৌত্র লাল রামপ্ৰসাদের পুত্র রামগতি রঘুনন্দনের বাগান হইতে কতকটা লেবু লইয়া আসেন , এজন্য তিনি খুল্ল পিতামহ রঘুনন্দন কর্তৃক তিরস্কৃত হন। তদুত্তরে রামগতি বলেন, দাদা মহাশয় এখন বৃদ্ধ হইয়াছেন কাশীধাম গমন করুন না কেন, এখন লেবুর চিন্তায় দিন কাটাইলে আর কত লভ্য হইবে ? এই কথা গুলি দৈববাণীবৎ রঘুর কর্ণে প্রবেশ লাভ করিলে, তিনি তৎক্ষণাৎ ইষ্টকবচাধার লইয়া গৃহ হইতে বহির্গত হইলেন। পরে স্ব প্রতিষ্ঠিত “ভূতাবালাখানা” মন্দিরে কিছুকাল অবস্থান করিয়া নিজ বিষয়াদির বন্দোবস্ত করিয়া কাণী অভিমুখে প্ৰস্থান করেন। পূৰ্বাঞ্চল হইতে নৌকাযানে বারাণসী গমন করিলে, পদ্মা অতিক্ৰম করিয়া “পরে গঙ্গা নদীতে পতিত হইতে হয় ; অদূরে মুর্শিদাবাদ থাকিয়া যায়। রঘু