পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৩৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


toCO धैङिहानिक द्धि । “বিক্ষিপ্ত থাকিয়া, এককালে তথায় লোকের ঘনবসতি থাকার পরিচয় প্ৰদান করিতেছে। এই স্থলে পাচশত গজ দীর্ঘ ও দুইশত গজ প্ৰস্থ বলদীৰী . (Ballo-Dighi ) aita ffäsi frjata vits তথা হইতে দুই মাইল দূরে ফিরোজপুর জায়গীর ; একটি সুউচ্চ ইষ্টক * দ্বারা দিয়া সাধু নিয়ামতুল্লার গৃহে প্ৰবিষ্ট হইতে হয় ; তাহার বংশধরগণ এখনও তথায় বাস করিতেছেন। একটী প্ৰকাণ্ড পুষ্করিণীর তীরে এই গৃহ অবস্থিত, তথায় একটী সাদাসিদে মসজেদও বৰ্ত্তমান রহিয়াছে এবং সুন্দর গম্বুজবিশিষ্ট । একটী অট্টালিকা,-যাহা এক সাধুর সমাধিমন্দির রূপে পরিচিত এবং যাহার ব্যয় নির্বাহাৰ্থে বাৎসরিক ছয় সহস্র টাকার জায়গীর প্রদত্ত হইয়াছে—দেখিতে * পাওয়া যায়। এই সমাধির চতুঃপার্থে আরও ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সমাধি-মন্দির আছে। উহার অধিপতি কতিপয় প্ৰাচীন-লিপি সংগ্ৰহ করেন, তন্মধ্যে একখানির অর্থ এইরূপ ;- “সর্বশক্তিমান পরমেশ্বর বলেন,-“মসজেদসমূহ নিশ্চয়ই ঈশ্বরের সম্পত্তি।” এই ফটকের নিৰ্ম্মাতা-খানজাহান। ৯৭০ হিজরীর ১লা জুন-হজা, ( ১৫৬৩ খৃঃ ২২শে জুলাই ) ।” ১০৮০ হিজরীতে (১৬৬৯ খৃষ্টাব্দে) শাহ নিয়ামতুল্লা পরলোক গমন করেন ; ‘সম্ভবতঃ তৎপূর্ব হইতেই গৌড়ের অধঃপতন সূচিত হইয়াছিল। बौद्धऊठून्द्र गाम्रॉब्ल । s:=s