পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আহেরিয়া ।* 8 (t “কিলো আবার চঞ্চলা হলি কেন ?” “তুমিই ভাই চঞ্চলা করিয়া তুলিলে।” “এখন কোন বরকে চাও বল দেখি ?” “তোমার মত কি ?” | “আমার ত বিয়ে নয় যে আমি মত দিব। তোমার মনের কথাটা কি খুলে বলত।” “কি বলব ভাই বাসন্তী শুক্লাষ্টমীতে পুষ্করের সেই সমস্ত কথা মনে পড়ছে, : ঘাট, সেই তুমি, সেই আমি, সেই কুমার, তার পর সেই সাবিত্রী র কথা ।” “তবে পুরাণ বরটির দিকে মনটা টানছে দেখছি”। “মন টানলে কি হবে ভাই ।” “সেকি এখনও ত তোমার বিয়ে হয় নি ?” "বিয়ে না হলেও এখন আর কোন উপায় নেই।” । । “তুমি রাজি হওত, আমি মহারাজ ও মহিষীকে সমস্ত কথা খুলে বলি।” “না ভাই তুমি কখনও তা করোনা। তুমি কি শুন নাই, বুদীরাজপুত্রের সহিত বিয়ের কথাবাৰ্ত্তা স্থির হয়ে গেছে। রাজপুতের, কথার কি নড় চড় হয়। আর হলেও উভয় বংশে চিরদিনের জন্য অশান্তির আগুন জ্বলতে থাকবে।” 'cउांभांव्र भcन्द्र यां४न कि नित्र शां८व ?” “যাবেনা। সত্যি, কিন্তু আমার মনের আগুন বড়, না। রাজপুতানার দুটীি य5 व९eद्ध भक्षा अभांत्युिद्ध थां ४न बद्ध।” “তা হলে উপায় ?” “উপায় আর নেই। আমি নিজেই আমার সর্বনাশ করেছি। পোড়া লজ্জায় সাবিত্রীমন্দিরের কথা কাহাকেও জানাই নাই। তোমাকেও বলতে নিষেধ করেছিলেম।” ‘তাইতে ত এমন ঘটলো ।”