পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আলাউদ্দীনের পদ্মিনীদৰ্শন । বিশাল দৰ্পণ-অঙ্কে পদ্মিনীর ছায়া সুবিম্বিত, দেখে নাই নীল পেসোয়াজ আবৃত করিতে গিয়া কুন্দ-কান্তিকায়া রূপের তরঙ্গ তন্ত্রী শুধু বৰ্দ্ধিয়াছে। স্বৰ্গ ছাড়ি, ভাবে মনে যবন ভূপতি, ওরূপ সাগরে তৃপ্তি করেছে বসতি ! R বিমুক্তিয়া বেণীবন্ধ, ভাবে নাই সতী, কুঞ্চিত অলককুঞ্জে মুখকাস্তি তার— নগ্ন শুভ্ৰ ফুল সম হবে স্মৃদ্ভিবতী, সীমান্তু-সিন্দুর, রক্ত কেশর তাহার। যবনভূপতি ভাবে, অলক-অঞ্চলে সৌন্দৰ্য্য শিশুটি বুঝি ঘুমায় বিরলে ! ইন্দীবর অাখিযুগে দুটি কৃষ্ণ তারা স্থির আচঞ্চল,-আহা বুঝে নাই সতী । মধুমত্ত ভৃঙ্গ যেন আছে জ্ঞানহারা তাহারি নয়ন-পদ্মে, হেন লয় মতি । ভাবে আল ওই কাল তারা-ভৃঙ্গ হুটি, জীবনের কুঞ্জে তার গুজে যদি দুটি ।