পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


to ঐতিহাসিক চিত্র। রামেশ্বর ভট্টাচাৰ্য্যের সহিত নিয়মিতরূপে ধৰ্ম্মালোচনা করিতেন। কর্ণগড় TDB SDBDBBBDS uDuDDB BB BYY KD DBBBt DDDBDB DBLDSDDuT গৃহে রাজা যোগসাধনাভ্যাস করিতেন। তৎপরে ভগবতী মহামায়ার সন্নিধানে ‘পঞ্চমুণ্ডি” নামক যে আসন প্ৰস্তুত হইয়াছিল, উক্ত আসনে রাজা সিন্ধিলাভ করেন। এখানে এরূপ কিম্বদন্তী প্ৰচারিত আছে, রাজা যশোবন্ত যে সময়ে সিদ্ধিলাভ করেন, তৎকালে ভগবতী মহাদেবী প্ৰত্যক্ষরূপে । রাজাকে দর্শন দেন। মহাদেবী মহামায়া রাজার প্রতি প্ৰসন্ন হইয়া যে সময়ে প্ৰত্যক্ষরূপে দর্শন দেন, তৎকালে রাজার মস্তকে দক্ষিণ হস্ত প্ৰদান করিয়া আশীৰ্ব্বাদ করেন। এজন্য রাজা যশোবস্তের মস্তকে দেবীর পঞ্চাঙ্গুলি চিহ্ন ছিল, এই চিহ্ন রাজার সিদ্ধির লক্ষণ। কবিবর রামেশ্বরের যোগসিদ্ধির চিহ্নস্বরূপ দেবী রুদ্রাক্ষের মালা প্ৰদান করেন। এই রুদ্রাক্ষসমূহ কোন কালেই শুষ্ক হয় নাই । এই মালা কবিবরের মৃত্যুর পরেও কর্ণগড় রাজভবনে ছিল। যে সময়ে ইংরেজ সেনাপতি মিঃ আবট সাহেব। আবাসগড়ের দুর্গ অধিকার পূর্বক রাজসম্পত্তি। লুণ্ঠন করেন, তৎকালে উক্ত অমূল্য মালা অপঙ্গত হইয়াছিল। কোন ব্যক্তি উক্ত মালা গ্ৰহণ করিয়াছিল তাহা স্থির করিবার উপায় নাই। শ্ৰীচন্দ্ৰনাথ সরকায়।