পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৭৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হাফেজ । , \O বঙ্গদেশে আনয়ন করিতে পারেন, তাহার বিশেষ চেষ্টা করিবেন। কথিত আছে, পত্ৰবাহক সিরাজে পৌছিলে, হাফেজ উপরোক্ত কবিতা রচনার আনুষঙ্গিক কোন ঘটনার বিন্দু বিসৰ্গও অবগত না হইয়াই কি যেন এক প্রকার দৈবশক্তি বলে উহার পাদপূরণ করিয়া দেন। বলা বাহুল্য উহা সম্পূর্ণরূপে গিয়াসুদ্দীনের অভিমত হইয়াছিল। তদনন্তর কবি এই বিষয়ে সম্পূর্ণ একটি কবিতা রচনা করেন। দিবানে এখনও ঐ কবিতা দৃষ্ট হয় এবং উহার শেষভাগে সুলতান গিয়াসুদ্দীনকে দেখিবার জন্য কবির যে আন্তরিক ইচ্ছা ছিল ও বঙ্গদেশ অতীব দূরবর্তী বলিয়াই যে তিনি আসিতে পারেন নাই, তাহার পরিচয় আছে। , একবার হাফেজ দাক্ষিণাত্যের বাহমানী শাসনকৰ্ত্ত মহমুদ সাহ কর্তৃক র্তাহার রাজদরবারে আহত হন। এবার কিন্তু তিনি ঐকান্তিক অভ্যর্থনা প্ৰত্যাখ্যান করেন নাই। উক্ত রাজসভায় কিছুকাল বাস করিবার কল্পনায় তিনি সিরাজ ত্যাগ করিয়া দাক্ষিণাত্য অভিমুখে যাত্ৰা করেন। সিন্ধুনদ পাের হইয়া লাহোর অতিক্রম করিয়া তিনি হরমজ নামক স্থানে আসেন। মহমুদসাহ কবিকে আনিবার জন্য যে সুসজ্জিত জাহাজ প্রেরণ করেন, তিনি এই স্থানে উহাতে আরোহণ করেন। কিন্তু সমুদ্র গমনে তিনি অত্যন্ত অনভ্যস্ত ছিলেন। সুতরাং শীঘ্রই সুযোগমত তীরে অবতরণ করিয়া সত্বর সিরাজে প্ৰত্যাবৰ্ত্তন कद्धक । হাফেজ সম্বন্ধে আর একটি গল্প প্ৰচলিত আছে। কথিত আছে, একদিন তৈমুরলঙ্গ তাহাকে ডাকিয়া পাঠান। হাফেজের একটি কবিতার একস্থানে আছে যে, যদি কেহ তাহার প্ৰেমিকার গণ্ডস্থলের একটি কৃষ্ণতিল উঠাইয়া দিতে পারেন, তাহা হইলে কবি তাহাকে বোখার ও সমরকন্দ নামক সমৃদ্ধ DBDBDB Dz sLBDD DBDBDBD DBBDDB DBDB DBBB DDDBDB BDBDBB DBBDS কষায়িত নোত্রে জিজ্ঞাসা করেন “যে ব্যক্তি প্ৰেমিকার কাপোলস্থ তিলরেখা | অপনয়নের জন্য দুইটি মহানগরী প্ৰদান করিবার প্রস্তাব করিয়াছিল, fতুমি কি সেই হাফেজ।” মুহুৰ্ত্তমধ্যে কবি উত্তর করিলেন, “জাহাপনা !