পাতা:করিম সেখ - জলধর সেন.pdf/১৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করিম সেখ سموb একগাছি লাল ঘুনসী ও একখানি ছোট চিরুনী কিনিয়া আনিল । এবং বসিরের অসাক্ষাতে তাহার স্ত্রীকে দিতে গেল। বসিরের স্ত্রী প্ৰথমে তাহা লইতে অস্বীকার করিল, কিন্তু করিম যখন কিছুতেই ছাড়িল না। তখন সে উহা লইয়া তুলিয়া রাখিল। তাহার পর যখন বসির বাড়ীতে আসিল, তখন ঐ দুই দ্রব্য বাহির করিয়া স্বামীর সম্মুখে রাখিল। বসিরের সহিত যখন করিমের সাক্ষাৎ হইল। তখন বসির বলিল ‘कब्रिभ डाई, जूमि ७ नकल कि कब्रिडछ ? जूमि श। cब्रांखशाब কর তা ত আমি জানি ; তবে তুমি, এ সকল জিনিষ কেন কিনে আন ? এ সকল কি ভাল ? - আর কখনও এমন ক’রে পয়সা নষ্ট ক’রো না ।” করিম এ কথার কোন উত্তর দিল না, শুধু একটু হাসিয়া চুপ করিয়া থাকিল। কিন্তু যতই দিনের পর দিন যাইতে লাগিল ততই করিমের ব্যবহার বসিরের নিকট ভাল বোধ হইল না । করিম এখন সন্ধ্যার সময় বসিরের বাটীতে আসে এবং রাত্ৰি ১১টা ১২টা পৰ্য্যন্ত বসিয়া নানাপ্রকার গল্প করে, হাসি তামাসা করে। এ সকল বসিরের চক্ষে ভাল বোধ হয় না। কিন্তু করিম তাহার অবাল্য বন্ধু, তাহার পরম উপকারী, করিম তাহার জন্য প্ৰাণ পৰ্য্যন্ত পণ করিতে পারে । এই সকল কথা যখনই তাহার মনে হইত, তখন সে আর কথা বলিতে পারিত না । এদিকে প্ৰিয়তমা পত্নীর উপরও তাহার অগাধ বিশ্বাস ছিল। তাহার স্ত্রী যে করিমকে ভাই ভিন্ন অন্য চক্ষে দেখিতে পারে, একথা তাহার মনেই আসিত না। তবুও কি জানি কেন, সময়ে সময়ে সে হৃদয়ে কেমন একটা অশান্তি বোধ করিত। মনে হইত করিমের এত ঘনিষ্ঠত ভাল নহে। কিন্তু সে